Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

অপবাদ সইতে না পেরে শ্রমিকের আত্মহত্যা

আশুলিয়া (ঢাকা) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০১৯, ২:১৮ পিএম

ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার আশুলিয়ায় চুরির অভিযোগে সালিশ বৈঠকে অপমান, মারধর ও জরিমানার ঘটনা সইতে না পেরে নির্মল প্রামাণিক (৪২) নামে এক নির্মাণ শ্রমিক আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে এক নারীসহ তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।
আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে জিরানী টেঙ্গুরী পুকুর পাড় এলাকার আবুল কাশেমের মালিকানাধীন ভাড়া বাড়ির কক্ষ থেকে ওই শ্রমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত নির্মল প্রামাণিক বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ থানার বালাইল কলেজপাড়া গ্রামের বিমল প্রামাণিকের ছেলে। তিনি আশুলিয়ার জিরানী টেঙ্গুরী পুকুর পাড় এলাকায় ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন এবং নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করতেন।
আটকরা হলেন- টেঙ্গুরী পুকুরপাড় এলাকার আলমগীর (৪০), তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৩৮) ও ইলিয়াস (৪২)।
এলাকাবাসী জানায়, গতকাল শনিবার দিনগত রাত ১২টার দিকে অটোরিকশা চুরি সংক্রান্ত একটি বিষয় নিয়ে এলাকার কথিত মাতবর আতাল নির্মাণ শ্রমিক নির্মলকে ডেকে পাঠান। পরে নির্মল গ্যারেজ মালিক বেলায়েত ও তার সহযোগী আলমগীরকে ফোন করে সেখানে ডাকেন। কিন্তু বেলায়েতের সঙ্গে কথিত মাতবর আতালের পূর্ব শত্রুতা থাকায় ওই সময় তারা বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন।
পরে স্থানীয় মেম্বর করিম চিশতি সেখানে গিয়ে আজ রোববার সকালে অটোরিকশা চুরির বিষয়টি মিমাংসা করা হবে বলে জানালে সবাই ফিরে যান।
এ ঘটনার পর রাত ১ টার দিকে গ্যারেজ মালিক বেলায়েত ও আলমগীর আবারো নতুন করে সালিশ বসিয়ে অটোরিকশা চুরির অভিযোগে নির্মলকে মারধর এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানার টাকা না দিয়ে নির্মল যেন পালিয়ে যেতে না পারে সেজন্য তার কক্ষে বেলায়েতের নির্দেশে আলমগীর ও তার স্ত্রী আনোয়ারা বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দেন। আজ রোববার সকালে তালা খুলে ডিসের তার দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় নির্মলকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে।
নিহতের ভাই বিকাশ প্রামাণিক অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে পুকুরপাড় এলাকায় ভাড়া বাসায় তার ভাই পরিবার নিয়ে বসবাস করলেও এখন পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই। কিন্তু গতকাল টাকার জন্য তার ভাইকে চোর বানিয়ে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) রাম কৃষ্ণ জানান, আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে আলমগীর, তার স্ত্রী আনোয়ারা ও ইলিয়াস নামে তিন জনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এছাড়া নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
গতকাল শনিবার বেলায়েতের গ্যারেজ থেকে একটি অটোরিকশা চুরি হয়। এ ব্যাপারে নির্মলকে অভিযুক্ত করে সালিশ ডাকা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ