Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

বাস্তবতা মেনে নিচ্ছেন উইলিয়ামসন-মরগ্যান

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

এরচেয়ে বেশি আর কি হতে পারত একটা ফাইনাল ম্যাচে? লন্ডন শহরেই গতপরশু উইম্বলডন ফাইনালে লড়ছিলেন রজার ফেদেরার আর নোভাক জোকভিচ। সিলভারস্টোনে চলছিল ফরমুলা ওয়ান রেস। গতিময় লন্ডনবাসীর ওসবই পছন্দ বেশি। কিন্তু না। ২০১৯ সালের এই রোববারটা ক্রিকেট খেলাটার জন্যও তো গৌরবের।

আগে ব্যাট করে ২৪১ রান করেছে নিউজিল্যান্ড। ওই রান তাড়ায় ইংল্যান্ডও থেমেছে ২৪১ রানেই। সুপার ওভারে ফয়সালা করতে গিয়েও একই সমান সমান হাল। এবার ইংল্যান্ডে আগে ব্যাট করেছে ১৫ রান, নিউজিল্যান্ডও থেমেছে ওই ১৫ রানেই। সব কিছুইতেই সমান সমান। তবু চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড কারণ তাদের ২২ চারের বদলে ১৪ চার মেরেছে নিউজিল্যান্ড। কিউইরা তাদের ২৪১ রানে মারে ১৪ চার আর ২ ছক্কা। ইংল্যান্ড ছক্কায় সমান থাকলেও চারে গেছে এগিয়ে। সুপার ওভার টাই করেও তাই টাই ভাঙানোর নিয়মের কব্জায় পড়ে নিউজিল্যান্ড।

নিয়মটা আগে থেকেই জানা। কাজেই পছন্দ না হলে আপত্তিরও জোরালো গ্রাউন্ড পাচ্ছে না কিউইরা। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বাস্তবতা বুঝিয়ে দিয়ে বললেন, ‘নিয়ম তো নিয়মই। সবার জন্যই একই। এখন, ম্যাচে নামার সময় তো আর আমরা এটা চিন্তা করে নামতে পারি না যে একটা বাউন্ডারি বেশি মারতে হবে যেন ম্যাচ দুই দফা টাই হলে আমরা এগিয়ে থাকি! আমরাও এসব ভেবে নামিনি, নিশ্চিতভাবে ওরাও না। আপনিও নিশ্চয়ই আগে ভাবেননি এমন কোনো প্রশ্ন করতে হবে, আমিও ভাবিনি এমন কিছুর উত্তর দিতে হবে। আমার এটা নিয়ে ভাবনা নেই। আমি তো এমনকি বাউন্ডারির সংখ্যাও জানি না এখনও, ¯্রফে জানি যে আমরা একটু পিছিয়ে। তবে হ্যাঁ, মেনে নেওয়া কঠিন তো অবশ্যই...। যাইহোক দুর্দান্ত এক খেলা হয়েছে। সবাই নিশ্চয়ই উপভোগ করেছেন।’

জস বাটলার বল ধরে মার্টিন গাপটিলকে রান আউট করার পরই মাঠে শুয়ে পড়লেন বেন স্টোকস। ম্যাচ টাই হওয়ার পর সুপার ওভারও টাই। কিন্তু বাউন্ডারি বেশি মেরে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। এমন মুহূর্তে স্টোকস আবেগে থরথর না হয়ে পারেন! তিন বছর আগে কোলকাতা ইডেন গার্ডেনেও মাঠে শুয়ে পড়তে হয়েছিল তাকে। তবে সেবার হতাশায় পারলে মাটির ভেতর ঢুকে যান। আর এবার তাকে কাঁধে তুলে কত উঁচুতে নিয়ে নাচবে বুঝে পাচ্ছে না গোটা ইংল্যান্ড।

২৪২ রান তাড়ায় ৮৬ রানে ৪ উইকেট হারানো অবস্থায় বাটলারের সঙ্গে ১০৪ রানের জুটির পর দলকে একাই টানেন স্টোকস। হারতে থাকা অবস্থা থেকে ম্যাচ করেন টাই। ৯৮ বলে করেন ৮৪ রানের অবিশ্বাস্য ইনিংস। পরে সুপার ওভারও টাই হলে বাউন্ডারি বেশি মারায় বিশ্বকাপ জিতে ইংল্যান্ড। ইংলিশ অধিনায়ক এউইন মরগ্যানকে মনে হলো এ নিয়ে প্রশ্নে একটু বিরক্ত, ‘আপনি যদি আমাকে বিকল্প কিছু দিতে পারেন, তাহলে হয়ত এই নিয়মের সঙ্গে সেটির তুলনা করতে পারব। আপাতত তো আমি বিকল্প ভাবতে পারছি না। নিয়ম অনেক আগেই করা হয়ে আছে এবং এসবের ওপর আমাদের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন