Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ভারতে পবিত্র কুরআন বিলির শর্ত হিন্দু মেয়েকে জামিন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ জুলাই, ২০১৯, ৩:৩৫ পিএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে পোস্ট করার দায়ে অভিযুক্ত এক হিন্দু মেয়েকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির কাছে পবিত্র কুরআন বিলির শর্তে জামিন মঞ্জুর করেছে ভারতের স্থানীয় একটি আদালত। দেশটির ঝাড়খন্ড প্রদেশের ১৯ বছর বয়েসি রিচা ভারতী ফেসবুকে এক পোস্টে বলেন যে, ‘মুসলমানরাই প্রতিশোধ নেয় ও সন্ত্রাসী হওয়ার কথা ভাবে।’

গত ১৩ই জুলাই স্থানীয় কলেজের প্রথম বর্ষে পড়ুয়া ছাত্রী রিচা ভারতীকে দেশটির সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগ গ্রেপ্তার করা হয়। সোমবার, ঝাড়খন্ড হাইকোর্টের বিচারক মনিষ কুমার সিং রিচাকে জামিন দেয়ার সময় একটি শর্ত জুড়ে দেয়। রিচাকে সরকারী মালিকানাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে কোরানের পাঁচটি কপি বিতরণ করার আদেশ দেয় বিচারক।

এমন রায়ের পরেই দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ শুরু হয়। ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ঝাড়খন্ড রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল। হিন্দুত্ববাদী এই সরকারের অধীনে এমন রায়ে অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন। স্থানীয় এক সংবাদ মাধ্যম স্বরাজ্যের লেখক, কনসাল্টিং এডিটর আনন্দ রঙ্গনাথ আদালতের এই রায়কে অস্বাভাবিক বর্ননা করে রায় প্রত্যাখান করা মেয়েটির পাশে সবাইকে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

আনন্দ বলেন, ‘অতিশয় বেদনাদায়ক। হিন্দু নারীকে জামিনের শর্ত হিসাবে কুরআন বিলি করার আদেশ দেয়া হয়েছে। সে প্রত্যাখ্যান করেছে। ভ্রাবো। কল্পনা করুন, যদি কোন মুসলমানকে জামিনের শর্ত হিসাবে গীতা বিতরণের আদেশ দেওয়া হয়- তাহলে আমাদের গণমাধ্যম এক সপ্তাহের জন্য এমন বিচার (সঞ্জী জুডিশিয়ারি) নিয়ে চেঁচামেচি শুরু করে দিত।’

হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ ভারতের এক হিন্দু মেয়েকে এমন শাস্তি দেয়ার দেশজুড়ে স্বাভাবিকভাবেই নিন্দার ঝড় শুরু হয়। তাও আবার হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকারের শাসনামলে, যখন দেশটির স্থানে স্থানে মুসলিম ধরে ধরে জোরপূর্বক ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করা হচ্ছে। এমনকি অনেক মুসলিমকে এজন্য মেরেও ফেলা হচ্ছে। সংখ্যাগরিষ্ঠদের ওপর নির্যাতনের সময়ে আদালতের এমন রায়কে অনেকেই ভাল হিসেবে গ্রহণ করেছে।

ময়ুখ রঞ্জন ঘোষ নামের এক ব্যাক্তি টুইটে জানায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি সম্প্রদায়ের প্রতি অগ্রহণযোগ্য উপাদান ছড়ানোর অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আদালত জামিন মঞ্জুর করার জন্য একটি শর্ত জুড়ে দিয়েছে। সেই ধর্মের পবিত্র গ্রন্থের ৫টি কপি বিলি করতে হবে। আন্তঃসাম্প্রদায়িক মূল্যবোধের চর্চা করা কী ভুল? সূত্র: ফার্স্টপোস্ট।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন