Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

পুলিশের তাহলে কাজ কী ?

হাইকোর্টের প্রশ্ন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

কুমিল্লায় বিচারকের সামনে আসামি হত্যার ঘটনায় পুলিশের গাফলতি ছিলো। এমন মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, এজলাসে ছুরি নিয়ে ঢুকে যায় লোকজন! সেটা ধরা পড়ে না। পুলিশের তাহলে কাজ কী? পুলিশ কী করে? যেখানে বিচারকদের নিরাপত্তা নেই সেখানে ন্যায়বিচার আসবে কীভাবে ? গতকাল বুধবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান এবং বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের ডিভিশন বেঞ্চ এ পর্যবেক্ষণ দেন। হাইকোর্ট প্রশ্ন তুলে বলেন, আদালতে কী নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ ? জজ সাহেবদের নিরাপত্তা কোথায়? বিচারক, আইনজীবী ও আদালতের নিরাপত্তা নিশ্চিত না হলে, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়। পরে আদালত এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করেন ৩০ জুলাই।

পরবর্তীতে জারি করা রুলে সারা দেশের আদালতে আইনজীবী, বিচারক ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তায় কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা জানতে চান হাইকোর্ট। একই সঙ্গে কুমিল্লার ঘটনায় যারা নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন তাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তাও জানাতে সরকারপক্ষীয় আইনজীবীকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এর আগে গত ১৫ জুলাই কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফাতেমা ফেরদৌসের আদালতে হত্যা মামলার আসামি আবুল হাসান অপর আসামি ফারুক হোসেনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার কান্দিগ্রামের আবদুল করিম হত্যা মামলার আসামি তারা। সম্পর্কে আসামিরা মামাতো-ফুফাতো ভাই। আলোচিত এ ঘটনায় সারাদেশের বিচারকদের নিরাপত্তা চেয়ে রিট করেন এক বিচারকের স্ত্রী সুপ্রিমকোর্ট বারের আইনজীবী ইশরাত হাসান। এ রিটে তিনি নিজেই শুনানি করেন। সরকারপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। শুনানিকালে আদালত বলেন, কুমিল্লার পর গত ১৬ জুলাই সুপ্রিমকোর্ট বারেও হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ অবস্থায় কোর্টে আইনজীবী, জাজ ও কর্মকর্তাদের সিকিউরিটির জন্য কী পদক্ষেপ নিলেন। সরকারপক্ষের আইনজীবী বলেন, কুমিল্লা এবং সুপ্রিমকোর্ট বারের দুটি ঘটনাই ব্যক্তিগত। এ সময় আদালত বলেন, ব্যক্তিগত হোক আর যা-ই হোক- কোর্টের ভেতরে ছুরি নিয়ে কীভাবে যায় ? পুলিশ কী করে? ডেফিনেটলি এটা পুলিশের নেগলিজেন্সি। এ সময় আবেদনকারী আইনজীবী বলেন, নিরাপত্তা তো সবার জন্য। উনিও (সরকারের আইনজীবী) এমন পরিস্থিতিতে পড়তে পারেন। তাই আইনজীবী, বিচারকসহ সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।



 

Show all comments
  • নোমান ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:১৯ এএম says : 0
    যেখানে বিচারকদের নিরাপত্তা নেই সেখানে ন্যায়বিচার আসবে কীভাবে ?
    Total Reply(0) Reply
  • Sikder Shahadat ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:১৮ এএম says : 0
    বর্তমানে কিছু পুলিশের কাজ হলো কোথায় এক টাকাও ঘুষ আছে সেটা তার পকেটস্ত করা
    Total Reply(0) Reply
  • তফসির আলম ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:২০ এএম says : 0
    আশা করি পুলিশের উর্ধ্বতন ব্যক্তিরা এর যথাযথ জবাব দিবেন
    Total Reply(0) Reply
  • Rahim Al Mahmud ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:২২ এএম says : 0
    তদন্ত কমিটি গঠন করা প্রয়োজন।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Hossain ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:২৩ এএম says : 0
    "হাস্যকর" এছাড়া কি বলার আছে,যেখানে বিচারক, আদালত, উকিল,পুলিশ, বাদি-বিবাদি পক্ষ,আদালত পাড়ায় লোকজনের সামনে একটি মানুষকে মেরে ফেলছে, আমরা কোথায় আছি,আমার মনে হয়,সমসাময়ীক বিষয় গুলো নিয়ে এদেশের সকল মানুষকে ভাবা উচিৎ।
    Total Reply(0) Reply
  • Emdadul Haque ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:২৪ এএম says : 0
    আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কে একটু নড়েচড়ে বসতে হবে । ভবিষ্যতে যেন এর চেয়েও ভয়াবহ দুর্ঘটনা না ঘটে সেটা খেয়াল রাখতে হবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হাইকোর্ট


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ