Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

শাহরুখের বিদায়ের খবরটি জানালেন তার বাবা!

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৫:৪৮ পিএম

১৫ বছর বয়সে জন্মদাতা পিতা তাজ মুহম্মদ খানকে হারিয়েছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। এটা হয়তো সবারই জানা। তবে শিরোনাম দেখে কেউ আবার ঘাবরেও যেতে পারেন। এক তো কিং খানের বিদায়! অন্যদিকে সেই খবরটি বাবার জানানোর বিষয়টি! প্রশ্ন উঠতে পারে তার মরা বাবা কিভাবে ছেলের বিদায়ের খবরটি জানালেন? এটা সত্যিই অবাক হওয়ার মতো। তবে পার্থক্য এতোটুকু যে, এটা কিং খানের সত্যিকার বাবার কথা বলা হচ্ছে না। তবে তিনিও শাহরুখের বাবাই। বলা হচ্ছে শাহরুখের অভিনয় জীবনের একজন বাবার কথা। তিনি হচ্ছেন অনুপম খের।
প্রযোজক যশ চোপড়া এবং পরিচালক আদিত্য চোপড়ার পরিচালনায় নয়ের দশকে মুক্তি পায় ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে যায়েঙ্গে’। এই সিনেমাতেই অনুপম খের ও শাহরুখ খান বাবা-ছেলের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। সম্প্রতি শাহরুখের এই বাবা সোশ্যাল মিডিয়ায় স্বাগত জানিয়েছেন ছেলে শাহরুখ খানকে। বিষয়টা শাহরুখ খানের অভিনয় জীবনের বিদায়! বাদশা কি তাহলে সত্যি সত্যিই অভিনয় থেকে বিদায় নিচ্ছেন?
তবে শাহরুখের বন্ধু সালমান খান তো বলছেন ভিন্ন কথা। কয়েকদিন আগে সালমান জানিয়েছেন, বলিউডে মাত্র পাঁচজন তারকা রয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে তারাই ইন্ডাস্ট্রিতে রাজ করছেন। দেখাচ্ছেন দাদাগিরিও। সালমানের দাদাগিরির এই তালিকার প্রথমেই রয়েছে শাহরুখ খানের নাম। সালমান আরও জানিয়েছেন, এই পাঁচজনই আরও অনেকটা সময় ধরেই রাজত্ব করবেন মুম্বাই চলচ্চিত্রে। শাহরুখের এই বিদায়ের খবরে সালমান খানকে তাহলে একটি প্রশ্ন করাই যায়, ভাইজন কি তাহলে শাহরুখের বিদায়ের বিষয়টি না জেনেই ওই মন্তব্য করেছিলেন?
সে সব কথা যাক। এবার জানা যাক সত্যিই কি শাহরুখ খান অভিনয় জীবনের ইতি টানছেন কি না। সম্প্রতি কিং খান একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, তিনি কিছুটা সময় বিরতি নিতে চান। কারণ কাজের জন্য তার তিন সন্তান এবং পরিবারকে একদমই সময় দিতে পারেন না। আর সে কারণেই তিনি খানিকটা বিরতি নিয়েছেন। কিন্তু নিন্দুকরা বিষয়টি ব্যাখ্যা করছেন ভিন্ন ভাবে। তাদের মতে সব তারকাই এই একই কথা বলে থাকনে। হাতে কাজ না থাকলে যা হয় আরকি। গতবছর শাহরুখের ‘জিরো’ মুক্তি পেয়েছিল। ওই সিনেমার ব্যর্থতার কারণেই নতুন কোনো সিনেমাতে যুক্ত হতে পারছেন না শাহরুখ। বিষয়টি এক প্রকার স্বকীকারও করেছেন বলিউড বাদশা।
শাহরুখ বলেছেন, নতুন কোনো সিনেমা হাতে নেই এটা সত্যি। কিন্তু আপাতত নতুন কোনো সিনেমার কাজই হাতে নিতে চান না তিনি। কারণটা ওই পরিবারকে সময় দেওয়া। তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এটা শাহরুখ খানের একটি ফন্দি মাত্র। কারণ এই বছর অভিনেতার হাতে থাকা কয়েকটি সিনেমা ছুটে গিয়েছে। রাকেশ শর্মার বায়োপিকে অভিনয় করার কথা ছিল তার। কিন্তু সেটা এখন আর হচ্ছে না। ওই সিনেমাতে শাহরুখের স্থান দখল করেছেন ভিকি কৌশাল।
অন্যদিকে ‘ডন থ্রী’তেও অভিনয় করার কথা ছিল বাদশার। কিন্তু সেটাতেও হচ্ছে না। তার স্থানে ইতোমধ্যেই এন্ট্রি মেরেছেন বরণীর কাপুর। শুধু তাই নয়, রোহিত শেঠির প্রযোজনায় ফারাহ খানের পরিচালনায় নির্মিত হতে যাচ্ছে অমিতাভ বচ্চন ও হেমা মালিনি অভিনীত ‘সত্তে পে সত্তা’র সিক্যুয়েল। শুরুতে শোনা গিয়েছিল ফারার এই সিনেমাতে বচ্চনের স্থানে অভিনয় করবেন শাহরুখ। কিন্তু এখন শোনা যাচ্ছে ভিন্ন খবর। সেখানে নাকি শাহরুখ নয়, নেওয়া হচ্ছে অন্য কোনো অভিনেতাকে।
এসব পরিসংখ্যানই হয়তো বলে দিচ্ছে শাহরুখকে নিয়ে অনুপম খেরের এই বিদায়ের স্বাগত বার্তার সত্যতা। তবে এটা কোনো ভাবেই মানতে পারছেন না বাদশার ভক্তরা। তাদের আশা শীঘ্রই অভিনেতা নতুন কোনো সিনেমা নিয়ে হাজির হবেন প্রেক্ষাগৃহ পর্দায়। এখন সময়ই আসলে বলে দেবে শাহরুখের বিদায় ঘন্টা সম্পর্কে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বলিউড


আরও
আরও পড়ুন