Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

আদালতে মিন্নির স্বীকারোক্তি

৫ দিনের রিমান্ডে রিশান ফরাজী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম | আপডেট : ১২:১১ এএম, ২০ জুলাই, ২০১৯

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। গতকাল শুক্রবার বিকাল ৩টার দিকে বরগুনার সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় এ জবানবন্দি দেন মিন্নি। জবানবন্দি শেষে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ৫ দিনের রিমান্ডের দু’দিন শেষে মিন্নিকে গতকাল আদালতে হাজির করে পুলিশ।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও বরগুনা সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. হুমায়ুন কবির বলেন, রিফাত হত্যাকান্ডে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। রিমান্ডের দ্বিতীয় দিনে তিনি হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিতে চান। তবে স্বীকারোক্তিতে মিন্নি কী বলেছেন তা তিনি বলতে রাজি হননি।
মিন্নিকে আদালতে হাজির করার খবরে আদালত প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের পাশাপাশি উৎসুক জনতা ভিড় জমান। আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত হন মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরও। মিন্নির বাবা বলেন, তার মেয়ে অসুস্থ। জোর জবরদস্তি ও নির্যাতন করে তার মেয়ের কাছ থেকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেয়া হয়েছে।
গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার মাইঠা এলাকার বাবার বাসা থেকে বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরসহ মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তার বক্তব্য রেকর্ড করতে বরগুনা পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যায় পুলিশ। এরপর দীর্ঘ ১০ ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদ ও বিভিন্ন মাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ ও পুলিশের কৌশলী এবং বুদ্ধিদীপ্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে আটকে যান মিন্নি। বেরিয়ে আসে হত্যাকান্ডে তার সম্পৃক্ততার প্রমাণ। এরপরই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ
এর আগে গত শনিবার রাত ৮টার দিকে সংবাদ সম্মেলন করেন নিহত রিফাত শরীফের বাবা আব্দুল হালিম দুলাল শরীফ। তিনি রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে দ্রæত গ্রেফতারের দাবি জানান।
তিনি বলেন, আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি আগে নয়ন বন্ডকে বিয়ে করেছিল। ওই বিয়ে গোপন করে রিফাত শরীফকে বিয়ে করে সে। বিষয়টি আমাদের জানায়নি মিন্নি এবং তার পরিবার। কাজেই রিফাত শরীফ হত্যার পেছনে মিন্নির মদদ রয়েছে। তাকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনলে সব বিষয় পরিষ্কার হয়ে যাবে।
এদিকে, রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেফতার তিন নম্বর আসামি মো. রাশিদুল হাসান রিশান ওরফে রিশান ফরাজীর ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী এ আদেশ দেন। গতকাল সকালে রিশানকে আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। পরে শুনানি শেষে আদালত রিশান ফরাজীর ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিশান এ হত্যাকান্ডের মূল হোতা নয়ন বন্ডের ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে এলাকায় পরিচিত। এ বিষয়ে রিফাত হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বরগুনা সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. হুমায়ুন কবির বলেন, রিশান ফরাজীকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। পরে শুনানি শেষে আদালত রিশান ফরাজীর ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ১৬ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে ১০ জন রিফাত হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
বরগুনা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান হোসেনের নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় অভিযান চালিয়ে রিশানকে গ্রেফতার করা হয়।



 

Show all comments
  • Tanvir Shahriar Rimon ২০ জুলাই, ২০১৯, ১২:৫৮ এএম says : 0
    হতে পারে প্রভাবশালীদের বাঁচাতে , মামলা ভিন্ন খাতে নিতে বলির পাঠা বানানো হচ্ছে মিন্নিকে । আবার হতে পারে মিন্নি হত্যা পরকল্পনায় সরাসরি জড়িত । আদালতে সবকিছু প্রমাণ হওয়ার আগ পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করা কঠিন । তবে আমাদের দু্র্ভাগ্য, আমাদের দেশে আইন তার নিজেস্ব গতিতে খুব কমই চলতে পারে !
    Total Reply(0) Reply
  • ZeeLqad Mithu ২০ জুলাই, ২০১৯, ১২:৫৮ এএম says : 0
    I don't know why my mind says nothing related to the case is dead fair.
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Jahidull Islam ২০ জুলাই, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
    I agree Bonds were created by some godfather but that's are not related to this Murder. This is a bigger problem. A lot of Bond's around here and there. Are they also involved in this murder? Triangular illicit relationship is related to this murder. So, try not mixed.
    Total Reply(0) Reply
  • Md Ismail ২০ জুলাই, ২০১৯, ১২:৫৯ এএম says : 0
    Hope government will transfer this sensitive case to PBI for re inquiry then fact should findout.
    Total Reply(0) Reply
  • MD Mintu ২০ জুলাই, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    মিন্নী সহ বন্ড গ্রুপের সকল সদস্য এরা সমাজের জন্য বিষফোঁড়ার মত..এদের কে সমাজ থেকে নির্মুল করতে হবে... বন্ড গ্রুপের প্রতিটি সদস্য এবং সে যত বড়ই হোক তাদেরকে আইনের আওতায় আনুন, আর এই খুনের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে বিচারের মুখোমুখি করুন....
    Total Reply(0) Reply
  • Al Mamun Shamim ২০ জুলাই, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    মিন্নির কোন আইনজীবী নেই। কথাগুলো চার দেয়ালে সীমাবদ্ধ। শুক্রবারের আদালত। বুঝার কিছু বাকি নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ জুয়েল ২০ জুলাই, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    নাটক বাদ দিন প্রধান স্বাক্ষী কি করে আসামী হয় জড়িত সংশ্লিষ্ট সকলকেই গ্রেফতার করে সঠিক বিচারে সহযোগী করুন।।। অসহায় নারী কে হেনেস্তা করা কতটা যৌক্তিক।।
    Total Reply(0) Reply
  • Áláúddíñ Álí ২০ জুলাই, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    জবানবন্দিতেতে সে অপরাধী মানলাম। কিন্তু যারা বন্ড গ্রুপকে সবসময় দিক নির্দেশনা দিত তারা যাতে উপযুক্ত শাস্তি পায় তার জন্য আকুল আবেদন করছি।
    Total Reply(0) Reply
  • durjoy ২০ জুলাই, ২০১৯, ৫:০৭ এএম says : 0
    সত‍্য-মিথ‍্যা যাচাইয়ের সুযোগ নেই
    Total Reply(0) Reply
  • ash ২০ জুলাই, ২০১৯, ৫:১৮ এএম says : 0
    AMI SURE MINNI JORITO, SHE JOTO E OVINOY KORUK NA KENO , TAR CHOKH TAR VAB VOGGI E BOLE DAY SHE SHOTTO KE GOPON KORAR CHESHTA KORCHE. AMADER SHOMAJE AMON ONEK NARI ASE JARA AK JONE SHONTOSTHO THAKE NA, MINNI JUST OI TYPER E AKJON, TOBE O VABTEO PARE NAI ETA ATO DURRR GORABE BA BOND ATO TA OVER REAKTING KORBE
    Total Reply(0) Reply
  • people group ২০ জুলাই, ২০১৯, ৭:২৬ এএম says : 0
    In the Video showing, Bond, Faraji and their gang killed to Rifat and that time his wife Minni tried to save her husband. Now we are seeing, some people is trying to push as guilty to Minni and hiding to those people who killed by them. Govt and administration also supports to as well other than Minni. Bangladesh people should wake up for injustice and give all kind( Mental,Financial,lawful etc) of supports to Minni. thanks
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Kowaj Ali khan ২০ জুলাই, ২০১৯, ৯:০৮ এএম says : 0
    হত্যা মারাত্মক এবং মহাবড় অপরাধ, সন্দেহ নাই। খোনের বদলা খোন,কিন্ত এই মিন্নি একটি আগাত ও করে নি রিফাতকে। তবে মিন্নি কিভাবে রিফাতকে হত্যা করিলো? হত্যা করিয়াছে তারা যারা রিফাতকে মারধর করেছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ