Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

টাঙ্গাইলে ছেলেধরা সন্দেহে তিনজনকে গণপিটুনি , হাসপাতালে ভর্তি

টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ জুলাই, ২০১৯, ৫:২৭ পিএম

টাঙ্গাইলে ছেলে ধরা সন্দেহে তিনজনকে গনপিটুনি দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। শহরের শান্তিকুঞ্জ মোড়, সদর উপজেলার কান্দিলা ও কালিহাতি উপজেলার সয়া পালিমা গ্রামে পৃথক এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার বিভিন্ন সময় এই ঘটনা ঘটে। গনপিটুনির শিকার এক জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তার নাম আকাশ (৪২)। সে গাজীপুরের জয়দেবপুর উপজেলার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, রোববার সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের কান্দিলা বাজারে ছেলে ধরা সন্দেহে একজনকে গনপিটুনি দেয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মারাত্বক আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এদিকে রোববার দুপুরের দিকে কালিহাতী উপজেলার সয়া পালিমা এলাকায় গনপিটুনির শিকার হন অজ্ঞাত এক যুবক। তাকেও পুলিশ উদ্ধার করে কালিহাতি থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এছাড়াও গতরাত ১১টার দিকে শহরের শান্তিকুঞ্জ মোড় এলাকা থেকে একজনকে উদ্ধার করে। তবে পুলিশের সন্দেহ সে মানসিক রোগি।
এ ব্যপারে টাঙ্গাইল সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টিলিজেন্ট এন্ড কমিউনিটি পুলিশিং) মো. সালাউদ্দিন বলেন, ছেলে ধরা সন্দেহে যারা আক্রান্ত হচ্ছে তারা প্রকৃত অপরাধি কিনা তদন্তের আগে বলা যাবে না। এ ব্যপারে গনসচেতনতা বাড়াতে শহরে মাইকিং করা হবে বলেও জানান তিনি। আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশকে খবর দেয়ার জন্য আহ্বান জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণপিটুনি

২১ জানুয়ারি, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন