Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯ আশ্বিন ১৪২৮, ১৬ সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় নির্বাচনে ভোট কারচুপির মহড়া ইউপি নির্বাচন মির্জা আব্বাস

প্রকাশের সময় : ৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট কারচুপির ‘মহড়া’ হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। গতকাল বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যৌথসভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের নিয়ে এ যৌথ সভা করেন নগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস।
তিনি বলেন, ইউপি নির্বাচন হয়ে গেল। এটা নির্বাচন বলা যাবে না। আগামীতে সংসদ নির্বাচনের রিহার্সেল হয়ে গেলে। কিভাবে আওয়ামী লীগের লোকেরা ভোট কারচুপি করবে, চুরি, কেন্দ্র দখল, সিল মারা, ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে না দেওয়া। দেশে শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি চলছে, কোনো কিছুই স্বাভাবিক অবস্থায় নেই বলে তার মন্তব্য।
ইসির বক্তব্যের সমালোচনা করে অবিভক্ত ঢাকা সিটির সাবেক মেয়র বলেন, ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ১৩২ জন মারা গেছে। তারপরও সিইসি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। আর কত লোক মারা গেলে দেশের অবস্থা ভাল হবে প্রশ্ন রাখেন তিনি।
সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মির্জা আব্বাস বলেন, রমজানের দিকে তাকিয়ে মানুষকে স্বস্তি দিন।
তিনি বলেন, লুটেরাদের প্রতি সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা আছে। তা না হলে চিনি, ছোলার দাম বৃদ্ধির কোনো কারণ নেই। রমজানের লোডশেডিং, পানি, বিদ্যুৎ, গ্যাস সাপ্লাই স্বাভাবিক রাখারও দাবি জানান মির্জা আব্বাস। এ ছাড়া যানজট নিরসনে সরকারকে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানান তিনি।
রমজানের আগেই কারাগারে আটক সাংবাদিক শফিক রেহমান, শওকত মাহমুদ, মেয়র এম এ মান্নান, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ দলের নেতাকর্মীদের অবিলম্বে জামিনে মুক্তির দাবি করেন বিএনপির এই নীতিনির্ধারক।
গণমাধ্যমে মির্জা আব্বাস জানরান, রমজানে ঢাকা মহানগর বিএনপি ইফতার মাহফিলের আয়োজন করবে। এখন ভেন্যু নির্ধারণ করা হয়নি বলে জানান মির্জা আব্বাস।
ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাসের সভাপতিত্বে যৌথ সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুুল আওয়াল মিন্টু, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভূঁইয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুুস সালাম আজাদ, মহানগর বিএনপির নেতা ইউনুস মৃধা, বজলুল বাসিত আনজু, শেখ রবিউল আলম রবি, এম কফিল উদ্দিন, ফরিদ উদ্দিন, শামছুল হুদা, হারুন অর রশিদ, ফেরদৌস আহমেদ মিষ্টি, সাজ্জাদ জহির, লতিফুল্লাহ জাফলু, মীর হোসেন মীরু, আরিফুর রহমান নাদিম প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় নির্বাচনে ভোট কারচুপির মহড়া ইউপি নির্বাচন মির্জা আব্বাস
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ