Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ০৭ ভাদ্র ১৪২৬, ২০ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে মামলা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

বাংলাদেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন সম্পর্কে মিথ্যা অভিযোগ করায় প্রিয়া সাহা ওরফে প্রিয়া বালা বিশ্বাসের বিরুদ্ধে রাষ্টদ্রোহিতার অভিযোগ এনে দেশে বিভিন্ন স্থানে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসকল মামলার মধ্যে কয়েকটি খারিজ ও কয়েকটি শুনানির অপেক্ষায় রাখা হয়েছে।
যশোর ব্যুরো জানায়, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খিস্টান ঐক্য পরিষদের নেত্রী প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রোববার সকালে যশোরের সিনিয়র জুডশিয়িাল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহ ও নির্বাচিত সরকার উৎখাত ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা গোলাম মোস্তফা কামাল। বাদীর আইনজীবী সৈয়দ কবীর হোসেন জনি সাংবাদিকদের জানান, বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি খারিজ করে দেন।
সিলেট ব্যুরো জানায়, প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে সিলেটে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল সকালে সিলেটের এডিশনাল চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোস্তাইন বিল্লাহ’র আদালতে ‘রাষ্ট্রদ্রোহ’ মামলা দায়ের করেন সিলেট মহানগর যুবলীগ নেতা রিমাদ আহমদ রুবেল। দুপুরে সিলেটের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে ২য় মামলাটি করেন সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা অ্যাডভোকেট সারোয়ার মাহমুদ।
প্রথম মামলার বাদি রিমাদ আহমদ রুবেল জানান, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ সম্পর্কে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য উপস্থাপন করেছেন প্রিয়া সাহা। যা বিশ্বের কাছে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে। এটা রাষ্ট্রদ্রোহী অপরাধ এবং বাংলাদেশ দন্ডবিধির ১২৪ (ক) ধারা মতে দন্ডনীয় অপরাধ। তাই তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা করেছি। মামলার আইনজীবী এডভোকেট মো. তাজউদ্দিন জানান- আদালত অভিযোগটি গ্রহণ করে পরবর্তী নির্দেশের জন্য রেখেছেন। একই অভিযোগে ২য় মামলাটি করা হয়। এই মামলাটিও আদালত গ্রহণ করে পরবর্তী নির্দেশের জন্য রেখেছেন। এডভোকেট সারোয়ার মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা জানান, বাংলাদেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন সম্পর্কে মিথ্যা অভিযোগ করায় প্রিয়া সাহা ওরফে প্রিয়া বালা বিশ্বাসের বিরুদ্ধে রাষ্টদ্রোহিতার অভিযোগ এনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মো. আসাদ উল্লাহ্ নামে একজন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পরে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।
মামলার বাদী মো. আসাদ উল্লাহ্ জানান, বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে হেয় করার জন্য প্রিয়া সাহা মিথ্যাচার করেছেন। এটি আমাকে আহত করেছে। তাই আমি স্বপ্রণোদিত হয়ে মামলা দায়ের করেছি।
ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা জানান, প্রিয়া সাহার নামে ঝালকাঠিতে রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগে মামলার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। গতকাল দুপুরে ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলাটির আবেদন করেন যুবলীগ নেতা ছবির হোসেন। বিচারক এ এইচ এম ইমরানুর রহমান বাদী ও আইনজীবীর বক্তব্য শোনেন। তবে এ বিষয়ে তিনি বিকেল চারটা পর্যন্ত কোন আদেশ প্রদান করেননি। পরে বাদীর আবেদনটি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাদীর আইনজীবীরা। মামলার বাদী ছবির হোসেন ঝালকাঠি শহর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এবং শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক। তিনি শহরের মধ্যচাঁদকাঠি এলাকার আবদুল কাদেরের ছেলে।
নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান, প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছেন নাটোরের এক গণমাধ্যম কর্মী। ঢাকার একটি সংবাদ পত্রের নাটোর প্রতিনিধি নাসিম উদ্দিন নাসিম বাদি হয়ে গতকাল দুপুরে নাটোরের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। এসময় বিচারক মামলার শুনানি শেষে নাটোর সদর থানার ওসিকে তদন্ত করে আগামী ৬ আগস্ট প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার বাদী নাসিম উদ্দিন নাসিম বলেন, বাংলাদেশের একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী ও ধর্মীয় স¤প্রীতি নষ্টকারীর বিরুদ্ধে আমি এই মামলা দায়ের করেছি। আশা করছি মামলায় সুবিচার পাবো।

 



 

Show all comments
  • Mohammed Rahim ২২ জুলাই, ২০১৯, ১২:৩৬ এএম says : 0
    Priya Shaha has given statistics of Hindu Muslim percentage at the time of partition of India. It is admitted that many Hindus have left East Pakistan/Bangladesh; on the other hand many Muslim left India and came to Bangladesh. This has changed the percentage of Hindu Muslim equation. This is a statistical error for not counting the other factors of percentage change. This is a trick to befool general public. This should not have been used to misguide the most powerful person on earth. I condemn such a misguiding move.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ