Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ০৭ ভাদ্র ১৪২৬, ২০ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

কুড়িগ্রামে সাড়ে ৯ লাখ বানভাসী মানুষের চরম দুর্ভোগ

ধরলা ও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বিপদসীমার উপর

কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০১৯, ৬:৪২ পিএম

কুড়িগ্রাম জেলার সাড়ে ৯লাখ বানভাসী মানুষ চরম দুর্ভোগে। নেই বিশুদ্ধ পানি। অপ্রতুল ত্রাণ। বিধ্বস্ত রাস্তাঘাট, বাঁধ, ঘরবাড়ি। নেই শৌচকর্ম সম্পন্ন করার মত নিরাপদ ব্যবস্থা। দেখা দিয়েছে পানিবাহিত নানা রোগ বালাই। সব মিলিলে এ জনপদের কয়েক লাখ মানুষ দুর্বিসহ জীবন-যাপন করছেন।

জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, বন্যার ফলে ৩টি পৌরসভাসহ ৬০টি ইউনিয়নে ৮৯৪টি গ্রামের ২লাখ ৩৮হাজার ৬৭২টি পরিবার পানিবন্দি। পরিবার প্রতি ৪জন হিসাবে বানভাসি মানুষের সংখ্যা দাড়ায় ৯লাখ ৫৪হাজার ৬৮৮জন। প্রায় ১০দিন ধরে এ মানুষ গুলো বন্যায় আক্রান্ত হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে।
ফসলী জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩৩ হাজার হেক্টর। বন্যায় এক হাজার ২৪৫কিলোমিটার রাস্তা, ৪০ কি.মি বাঁধ ও ৪১টি ব্রীজ/কার্লভার্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নলকুপ ক্ষতিগস্ত হয়েছে ৯ হাজার ৭৩৪টি। প্রায় ২লক্ষাধিক গবাদিপশু পানিবন্দি। বন্যার কারনে প্রাথমিক বিদ্যালয়, উচ্চ বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও কলেজ মিলে এক হাজার ২৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ।

জেলা প্রশাসক মোছাঃ সুলতানা পারভীন জানান, সকল বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এ পর্যন্ত জেলা প্রশাসন থেকে এখন পর্যন্ত ৮শ’ মে.টন জিআর চাল, ১৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, ৭ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার ও ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৬ হাজার ৪২৮ মে.টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এছাড়া বন্যায় নিহত ১৬টি পরিবারকে ২০হাজার টাকা করে ৩লাখ ২০হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হয়।

রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বানভাসীদের পাশে দাড়িছে। আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জেলার ৫ হাজার পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল, সোয়াবিন তেল, ডাল, চিনি, চিড়া, গুড়, মুড়ি, নুডুলস, বিস্কিট, পানি ও স্যালাইনসহ একটি করে ত্রাণের প্যাকেজ বিতরণ করা হয়। অপরদিকে জেলা পরিষদের উদ্যোগে ১০ লাখ টাকার শুকনো খাবার, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি কর্তৃক চিলমারীতে ৫শ’ পরিবারকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা করে ২২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ডব্লুউএফপি কর্তৃক সদর উপজেলায় ১ হাজার ২৫১টি, উলিপুরে ৮৫৫টি এবং চিলমারী উপজেলায় ২ হাজার ৩০৮টি পরিবারে সাড়ে ৪ হাজার টাকা করে ১ কোটি ৯৮লাখ ৬৩হাজার টাকা বিতরণ করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কুড়িগ্রাম


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ