Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

তাইজুল-ফরহাদের ভাগ্যবদল

ফরহাদ রেজার কাছে ‘চমকপ্রদ কল’

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সাকিব ভাইয়ের বদলি আমি নই

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বর্তমানে শ্রীলঙ্কায় রয়েছে বাংলাদেশ দল। এ সিরিজে সাকিবের পরিবর্তে দলে সুযোগ পেয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। দীর্ঘদিন পর সুযোগ পাওয়া তাইজুল এটি কাজে লাগাতে চান। সেই সাথে এ সিরিজে শ্রীলঙ্কার চাইতে নিজেদের কোন অংশেই পিছিয়ে রাখছেন না তিনি।

সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৬ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে নিয়মিত নন তাইজুল। লঙ্কা সিরিজে সাকিব যাচ্ছেন না সেটা অনেকটা নিশ্চিত ছিল। তার বদলি হিসেবে ডাক পেয়েছেন তাইজুল। দীর্ঘদিন পর সুযোগ পাওয়া তাইজুল এটি কাজে লাগানোর চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি, ‘হয়ত ওয়ানডে খেলা হয়নি কিন্তু আমি প্রিমিয়ার লিগ, বিপিএল কোন না কোন খেলার মধ্যেই ছিলাম। চারদিনের ম্যাচও খেললাম। একটা সুযোগ আসছে আমার সামনে, ঐটা কাজে লাগানোর চেষ্টা করব।’

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার চেয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে নিচে থেকে শেষ করেছে বাংলাদেশ। এছাড়াও এ সফরে নেই মাশরাফি, সাকিব, সাইফউদ্দিন। মানসিক দিক দিয়ে স্বাগতিকদের থেকে একটু পিছিয়ে থাকবে বাংলাদেশ সেটিই স্বাভাবিক। কিন্তু তাইজুল সেটা মানছেন না। মাঠে যারা ভালো করবে তারাই ভালো ফল পাবে বলছেন এ বাঁহাতি স্পিনার, ‘আমাদের দল বর্তমানে যে জায়গায় রয়েছে ভালো আছে আমি মনে করি। শ্রীলঙ্কার চেয়ে যে খারাপ দল আমরা সেটা বলতে পারবেন না। এখানে যারা ভালো করবে তারাই ভালো ফলটা পাবে। আমরা সবাই চেষ্টা করব ভালো খেলাটাই উপহার দিতে।’

সাকিবের বদলি হিসেবে দলে ডাক পাওয়া তাইজুল মূল একাদশে থাকবেন কিনা সেটি এখনো অনিশ্চিত। বোলিংয়ে সাকিবের অভাব পূরণের জন্য দলে ডাকা তাইজুলকে। তবে সাকিবের সাথে নিজেকে তুলনা করতে নারাজ তাইজুল, ‘আসলে এই কথার সাথে একমত না। আমি আগেও বলেছি, সাকিব ভাইয়ের বদলি হিসেবে আমি আসি না! সাকিব ভাই বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার। যদি সুযোগ পাই চেষ্টা করব উনার জায়গায় ভালো কিছু করতে।’


ফরহাদ রেজার কাছে ‘চমকপ্রদ কল’
শেষ মুহূর্তে বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজার হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে দল থেকে ছিটকে যাওয়ার কারণে কপাল খুলেছে ফরহাদ রেজার। মাশরাফির চোট পাওয়ার পর প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর ফোন পেয়ে অবাক হয়েছিলেন এ অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার।
দল নিয়ে উড়াল দেওয়ার কথা ছিল মাশরাফির। শ্রীলঙ্কায় রওনা দেওয়ার আগের দিন সংবাদ সম্মেলনও করেছিলেন তিনি। তবে বিপত্তিটা বেঁধেছে তার পরেই। সন্ধ্যায় দলের অনুশিলন ছিল। বোলিং অনুশীলনের সময় পুরনো চোট, হ্যামস্ট্রিংয়ের কবলে পড়েন মাশরাফি। খেলতে পারবেন না তিন থেকে চার সপ্তাহ। দল যাওয়ার আগের দিনই নির্বাচকরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন তার বদলি কাকে দলে নিবেন।

শেষ পর্যন্ত তার জায়গা সুযোগ পেয়েছেন ফরহাদ। গত আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজেও দলের সঙ্গে ছিলেন এই পেস অলরাউন্ডার। তবে খেলা হয়নি একটি ম্যাচও। প্রধান নির্বাচক নান্নুর ফোন পেয়ে চমকে উঠেছিলেন ফরহাদ রেজা, ‘আমি শেষ মুহূর্তে ঘুমানোর প্রস্তুতিই নিচ্ছিলাম এবং ফোন বেজে উঠল। নান্নু ভাইয়ের (প্রধান নির্বাচক) ফোন ছিল। তিনিই আমাকে স্কোয়াডে ডাক পাওয়ার ব্যাপারটি জানান। সত্যি বলতে আমার জন্য এটি চমকপ্রদ কল ছিল। এমন নয় যে এটি অসম্ভব। আমি বিশ্বকাপের স্ট্যান্ডবাই তালিকায়ও ছিলাম। আমি ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফর্ম করেছি এবং আমার জন্য এ সিরিজে পারফর্ম করা চ্যালেঞ্জিং হবে।’

শেষ মুহূর্তে দল থেকে ছিটকে গিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি। তার ছিটকে যাওয়ার কারণে মাশরাফির জন্য খারাপ লাগছে ফরহাদের, ‘মাশরাফি ভাইয়ের জন্য খারাপ লাগছে। শেষ মুহূর্তে তিনি বাদ পড়েছেন আমার এমন অবস্থায় আমিও দলে এসেছি। তিনি একজন অসাধারণ অধিনায়ক।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফরহাদ রেজা
আরও পড়ুন