Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন ও চকরিয়ার ফাসিঁয়াখালী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী বিজয়ী

বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার | প্রকাশের সময় : ২৫ জুলাই, ২০১৯, ৭:০৬ পিএম

হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের উপ নির্বাচনে ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিলেন দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) ছিল টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন। ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এইচ কে আনোয়ার ইন্তেকাল করলে ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের পদটি শূন্য হয়েছিল।
এখানে নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের প্রার্থী রাশেদ মোহাম্মদ আলী, সাবেক চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন চৌধুরী ও সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম
মাষ্টার মীর কাশেমের পুত্র এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম এই উপ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন।
আজ দুপুরে স্বতন্ত্র ২ প্রার্থী, নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন। এক সংবাদ সম্মেলনে তারা দাবি করেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রাশেদ মুহাম্দমদ আলী ব্যাপক কেন্দ্র দখল করে ব্যাপক জাল ভোট দিয়েছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের এজেন্ট এবং ভোটারদের কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়েছেন।
এই অভিযোগ প্রশাসনের কাছে বার বার করার পর ও প্রতিকার না হওয়ায় তারা পৃথক সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন এবং নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান।
এদিকে চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের উপ নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ফরিদুল আলম ও শাহেদুল ইসলাম দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ এনেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ