Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

মসনবী শরীফ

কাব্যানুবাদ : রূহুল আমীন খান | প্রকাশের সময় : ২৬ জুলাই, ২০১৯, ১২:০২ এএম


মাওলানা জালাল উদ্দীন রূমী রহ.

১৭৫৮. উঠে গেলে রূহ্্ সম্মুখে পর্দা আছে যত

সঞ্জিবনী বল হবে তার ঈসা মসীর মত।

১৭৫৯. মিশ্রি সম মিষ্টি কথা বলতে যদি চাও
অতি ভোজন অতি কথন বন্ধ করে দাও।

১৭৬০. ধৈর্য ধর জ্ঞানীরা খায় তিক্ত মাকাল ফল
ভালবাসে মন্ডা মিঠাই হালুয়া শিশুর দল।

১৭৬১. সবরকারী হয় শতত ঊর্ধ্ব আকাশগামী
নফ্্স-গোলাম নি¤œ থেকে নি¤েœতে যায় নামি।

শেখ ফরীদউদ্দীন আত্তার-এর একটি উক্তির ব্যাখ্যা

১৭৬২. ‘সাহেবে নফ্্স’১ গাফিলরা হও লিপ্ত সাধনায়
‘সাহেবে দিল্্’ বিষ খেলে তা সির্কা হয়ে যায়।

১৭৬৩. ‘সাহেব দিল’ ধারক বাহক বিশুদ্ধ আত্মার
তীব্র হলাহল খেলেও হয় না ক্ষতি তাঁর।

১৭৬৪. সুস্থজনের বাছ-বিচারের আবশ্যকই নাই
পীড়িতদের কুপথ্য ত্যাগ অবশ্যই চাই।

১৭৬৫. নবী বলেন : দুর্বিনীত তালেব মুরীদগণ!
করবেনা মুর্শিদের সাথে ধৃষ্ট আচরণ।

১৭৬৬. নমরুদী খাস্্লত তোমাতে যোগ্য তুমি নও
অগ্নিতে পা রাখতে চাহ ? অগ্রে খলীল হও।

১৭৬৭. দুঃসাহসী বীর ডুবুরী সিন্ধু তলে গিয়া
কুড়িয়ে আনে মুক্তো-মানিক বিপদ পাড়ি দিয়া।

১৭৬৮. সাতারু নও, যোগ্যতা নাই তোমার নাবিকের
তবু তুমি ঝাপ দিতে চাও বক্ষে সমুদ্রের!

১৭৬৯. সুবর্ণ হয় ‘মর্দে কামিল’ ধরলে হাতে ছাই
অযোগ্যরা ধরলে সোনা ছাই হয়ে যায় তা-ই।

১৭৭০. ‘মর্দে কামিল’ প্রিয় খোদার এই দুনিয়া ’পরে
খোদার হস্ত যায় হয়েÑ সে যে হাত দিয়ে ধরে।
১৭৭১. অযোগ্যদের হস্ত হলো শয়তান ও দৈত্তের
ব’িদ তারা কঠিন জালে ধাপ্পা ফেরেবের।

১৭৭২. কামিলগণের মূর্খতা হয় জ্ঞানে রূপায়িত
জ্ঞান নাকেসের মূর্খতাতে হয় রে পরিণত।

১৭৭৩. ভাল খাবার খেলেও রুগী ব্যারাম বাড়ে তায়
কুফ্রি যদি করে কামিল দ্বীন হয়ে তা যায়।

১৭৭৪. লড়তে যেওনা সমুখে অশ্ব-আরোহীর
হে পদাতিক! থামোÑ হবে খন্ডিত ওই শির।

১৭৭৫. হযরত মূসা আলাইহিস সালামের প্রতি
যাদুকরদের সম্মান প্রদর্শন

১৭৭৬. মিসর দেশের কয় যাদুকর ফারাও যমানায়
লড়েছিল মূসার সাথে ঈর্ষা ও হিংসায়।

১৭৭৭. মূসায় করেছিল তারা অগ্রাধিকার দান
করেছিল লড়াই-মাঠে নবীকে সম্মান।

১৭৭৮. বলেছিল : শুরু করুন অগ্রে যদি চান
কিংবা মোদের শুরু করার করুন আদেশ দান।

১৭৭৯. মূসা বলেন : দেখাও আগে যা দেখাবার আছে
তুলে ধর ভেল্কিবাজি তোমরা সবার কাছে।

১৭৮০. নবীর তাযীম করায় তারা দ্বীন ও ঈমা পেল
লড়তে আসার জন্য তাদের হাত-পা কাটা গেল।

১৭৮১. মূসা নবীর মর্যাদা শান জানত যাদুকর
লড়তে এসে তবু, হারায় হাত-পা অতঃপর।

১৭৮২. বলতে পারেন, খেতে পারেন যা যা কামিলগণ
তুমি নাকিস, বলোনা তা করোনা ভক্ষণ।

১৭৮৩. কামিল হলেন জিহŸা এবং তোমরা হলে কান
কানকে খোদা করিয়াছেন শোনার আদেশ দান।

১৭৮৪. দুধের শিশু কোনো কথা কয়না মুখে তার
নীরব থেকে শুনে কেবল যায় সে অনিবার।

১৭৮৫. বেশ কিছু দিন হয় থাকিতে মুখে দিয়ে তালা
সময়টি তার শুনে শুনে শুধু শেখার পালা।

১৭৮৬. উপায় কি সেই বেচারাদের কর্ণে কালা হলে
ভিড়ে যেতে হয় তাহাদের গিয়ে বোবার দলে।

১৭৮৭. জন্মগত বোবার কোনো শোনার মুরোদ নাই
কেমন করে বলবে যাহা শোনেনি সে তাই।

১৭৮৮. সকল কথা সঠিক ভাবে লও শুনিয়া, পরে
যাও এগিয়ে বলার পানে শ্রবণ সড়ক ধরে।

১৭৮৯. গৃহ মাঝে প্রবেশ কর দরজা-দুয়ার দিয়া
কাঙ্খিত কে খোঁজো তাহার উপকরণ নিয়া।

১৭৯০. শোনার লাগি যাহার কোন কানের বালাই নাই
সব চাহিদার ঊর্ধ্বে সে জনÑ আল্লা’ মালিক সাঁই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন