Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল পল্লীতে হামলার মামলায় ৯০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল

অভিযোগ পত্র প্রত্যাখান করে সাঁওতালদের মহাসড়ক অবরোধ

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ জুলাই, ২০১৯, ৫:৩৭ পিএম

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল পল্লীতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও হত্যা মামলায় ৯০ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।
গতকাল ২৮ জুলাই রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশীট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবদুল হাই সরকার।
বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবদুল হাই সরকার জানান, সাঁওতাল পল্লীতে হামলার মামলা তদন্ত শেষে ৯০ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করা হয়েছে। ঘটনার রহস্য উন্মোচন ও সঠিক তদন্ত শেষ করতে সময় লাগে প্রায় আড়াই বছর। সঠিক তদন্ত ও মুল আসামিদের আইনের আওতায় আনতেই চার্জশীট দাখিলে কিছুটা সময় লেগেছে। এরআগে, মামলাটি তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত রাখার পাশপাশি অভিযুক্তদের মধ্যে ২৫ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া লুটপাট হওয়া বেশ কিছু মালামালও উদ্ধার করা হয়।
চার্জশীটে অভিযুক্ত ৯০ আসামির মধ্যে উল্লেখযোগ্য আসামিরা হলেন, মাহিমাগঞ্জস্থ রংপুর চিনিকলের (জিএম-অর্থ) নাজমুল হুদা, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাপমারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাকিল আহম্মেদ বুলবুল, ইউপি সদস্য শাহ আলম ও আইয়ুব আলী। অভিযুক্ত আসামিদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৫ জন গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠালেও তারা সকলেই জামিনে আছেন।
উল্লেখ্য রংপুর চিনিকলের মালিকানাধীন সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারে বিগত ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর সংঘটিত ঘটনার ৩ সপ্তাহ পর ২৬ নভেম্বর শনিবার সাঁওতালদের পক্ষে থোমাস হেমরম গোবিন্দগঞ্জ থানায় হাজির হয়ে স্থানীয় এমপি অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ সহ ৩৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৫/৬শ’জনকে আসামী করে ৩ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকার ক্ষতির দাবি করে মামলা দায়ের করেছিল।
প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর গোবিন্দগঞ্জের রংপুর চিনিকলের সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারের জমিতে চিনিকল কতৃপক্ষের লাগানো আখ কাটাতে গেলে পুলিশ ও চিনিকল শ্রমিকমিক-কর্মচারীদের সঙ্গে দখলদার বাঙ্গালী ও সাঁওতালদের সংঘর্ষ হয়। এতে পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে ৯জন পুলিশ তিরবিদ্ধ এবং পুলিশের গুলিতে ৪জন সাঁওতাল আহত হয়। গুলিবিদ্ধ ৪ সাঁওতালের মধ্যে ৩জন নিহত হয়। এ সময় তাদের বসতঘরগুলো আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন সাঁওতালরা।
এদিকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর আদালতে দাখিলকৃত অভিযোগ পত্র প্রত্যাখান করে সাহেবগঞ্জ বাগদা ফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটি রোববার বিকাল ৩টার দিকে ইক্ষু খামার অফিসের সামনে গোবিন্দগঞ্জ-দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করলে এসড়কে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিকাল ৫টা ২০ মিনিটে এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অবরোধ চলছিল।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সড়ক অবরোধ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ