Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

‘গ্রুপিং’ রাজনীতি ধ্বংসের মূল কারণ : সিলেটে মন্ত্রী ইমরান আহমদ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০১৯, ৬:৪২ পিএম

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়ক মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি বলেছেন- ‘গ্রুপিং’ রাজনীতিকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। আওয়ামী রাজনীতিতে গ্রুপ হবে একটাই, সেটি হচ্ছে শেখ হাসিনা গ্রুপ। জেলা-উপজেলা গুলোতে নেতার নামে যারা গ্রুপ তৈরী করেন তারা দলের ঐক্য ভেঙে দিয়ে ফাঁটল ধরান। এতে দলের লাভের চেয়ে ক্ষতি বেশী হয়। এসব গ্রুপিং রাজনীতি পরিহার করে সকলে মিলে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

সোমবার (২৯ জুলাই) বিকালে সিলেট জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি।
তিনি আরো বলেন, নেতৃত্ব নির্বাচনের পূর্বে অতীতের ভূমিকা, পরিবারের ভূমিকা ও বিগত দিনে আন্দোলন সংগ্রামের ভূমিকা জেনে নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন। ভুল নেতৃত্ব নির্বাচন করলে এই কমিটি যতোদিন থাকবে, ততোদিন যুবলীগ জিম্মি হয়ে থাকবে।
এর আগে সোমবার সকাল ১১টায় দীর্ঘ ১৬ বছরের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে ঐতিহাসিক রেজিস্টারি মাঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে সিলেট জেলা যুবলীগের সম্মেলন শুরু হয়। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ।
উদ্বোধকের বক্তব্যে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন- যুবলীগ একটি সুশৃঙ্খল সংগঠন। এটি শৃঙ্খলা শেখার কারখানা। যুবলীগে ধান্দাবাজ-চাঁদাবাজদের স্থান নেই। এখানে মেধাবীদের জায়গা আছে। মেধাবীরাই যুবলীগে মূল্যায়িত হবে। যুবলীগ কখনো হাইব্রিডদের স্থান দেয় না। সেজন্য আপনাকেই ঠিক করতে হবে যুবলীগ করবেন কি করবেন না। যুবলীগ করতে হলে আপনাকে মুজিব আদর্শের উত্তরসূরি হতে হবে। কারণ যুবলীগ কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর স্বার্থ হাসিলের জায়গা নয়, যুবলীগ শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড। ছাত্রলীগের রাজনীতি শেষ করে যুবলীগের রাজনীতি করে আওয়ামী লীগে যেতে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদেরও পরামর্শ দেন তিনি।
তিনি আরো বলেন, যুবলীগ স্লোগানের রাজনীতি করে না। যুবলীগ করে মাঠের রাজনীতি। যারা নিজের নামে কর্মীদের দিয়ে স্লোগান দিয়ে, তালি দিয়ে নেতা হতে চান তারা কখনই যুবলীগের নেতৃত্বে আসতে পারবেন না। স্লোগান আর হাততালি দেখিয়ে আমাকে খুশী করতে যারা চান তাদের উদ্দেশ্যে আমার একটাই কথা ‘আমি স্লোগান পার্টি, তালি পার্টি না’। নেতা হতে চাইলে কাউন্সিলরদের মন জয় করুন। তাদের ভোটে বিজয়ী হতে পারলেই একমাত্র নেতা হতে পারবেন। এছাড়া কোনভাবে যুবলীগের নেতা হওয়া যাবে না।
সিলেট জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামীম আহমদের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মহসিন কামরানের পরিচালনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী।
যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মুজিবুর রহমান চৌধুরী, মাহবুবুর রহমান হিরন, আব্দুস সাত্তার মাসুদ, মোহাম্মদ আতাউর রহমান, এডভোকেট বেলাল হোসেন, ড. আহমদ আল কবীর, মোতাহার হোসেন সাজু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহি উদ্দিন মহি, সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম বদি, ফজলুল হক আতিক, ফারুক হাসান তুহিন, দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমান, ত্রাণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিরু, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ হায়দার লিটন, সহ সম্পাদক তারেক আল হাসান, মোয়াজ্জেম হোসেন, হাবিবুর রহমান পবন, রবিউল আলম।
শুরুতে পবিত্র থেকে পাঠ করেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক হাজী মোহাম্মদ আলাউদ্দিন এবং পবিত্র গীতা থেকে পাঠ করেন দিলীপ কুমার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ