Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে গণপিটুনি দিয়ে ৪ ছাত্রলীগ নেতাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ

কুড়িগ্রাম জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০১৯, ৬:৫৫ পিএম

বাজারে প্রকাশ্য ইউপি সদস্যকে মারপিটের ঘটনায় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে গণপিটুনির খেয়েছে ৪ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী। রাতে অন্ধ্যাকারে ঘটনায় এ সময় আহত হয়েছেন প্রায় ২০ জন সাধারন মানুষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন নিয়ে আসার জন্য ব্যাপক পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে ওই বাজারে । দীর্ঘ ৪ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে জনতার হাত থেকে ওই নেতাদেরকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। আহত ইউপি সদস্যকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে মুমুর্ষ অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাতে উপজেলার বড়ভিটা বাজারে। আটক নেতাকর্মীদের বিরুদ্দে মামলা করে অভিযুক্তদেরকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে ।
জানাগেছে,বড়ভিটা ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোঃ মজিবর রহমান (ঢেরুস) রোববার উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরের সিও মোঃ সামসুল আলমকে নিয়জিত রক্ষনাবেক্ষণ কর্মসূচীর আওতায় চুক্তি ভিত্তিক মহিলা নিয়োগের জন্য তালিকা প্রদান করেন। তালিকায় তার লোকের নাম থাকায় দু’জনের মধ্যে কথা কাটকাটি হয়। এরই রেশ ধরে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদি, সাংস্কৃতিক সম্পাদক জয় হাসানসহ ১০/১২ জনের একটি দল রাতে বড়ভিটা বাজারে যান । সেখানে ইউপি সদস্যের সঙ্গে দেখা হলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মারামারি হয়। এসময় ইউপি সদস্য আহত হলে উপস্থিত লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগ কর্মিদেরকে ঘেরাও করে গনপিটুনি দিতে থাকে। এ সময় স্থানীয় আজিজার রহমান মাস্টার, হাবিবুর রহমান প্রামানিকসহ কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মিদের উদ্ধার করে একটি অফিসের মধ্যে ঢুকে রাখে । সেখানে গিয়ে কয়েক হাজার মারমূখি জনতা দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অফিসে হামলা চালায়। সুষ্ঠু বিচার চেয়ে উত্তেজিত জনতা রাস্তায় ওপর গাছ ডাল ফেলে রাখে। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ ও কুড়িগ্রাম জেলা সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। ছাত্রলীগ কর্মিদের বিরুদ্ধে মামলা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদি, সাংস্কৃতিক সম্পাদক জয় হাসান, ছাত্রলীগ কর্মী শিবলু এবং মিলনকে থানায় নিয়ে আসে । এদিকে ঘটনার সময় আহত হন, আজিজার রহমান মাস্টার, হাবিবুর রহমান প্রামানিক, এরশাদুল হক ভুট্টু, বেলাল হোসেন, একরামুল হক,বাদল, বাচ্চু, জবদুল, রহিদুল, জলিল, নবাব আলী, রাশেদুল হকসহ আরও অনেকে।

আহত ইউপি সদস্যের বড় ভাই হাবিবুর রহমান প্রামানিক জানান, ছাত্রলীগ কমীরা আমার ভাইয়ের ওপর অর্তকিত ভাবে হামলা করেছে। পরে বাজারের লোকজন তাদেরকে ঘেড়াও করে গনপিটুনি দিয়ে আটক করেছে। চিকিৎসাধীন মজিবর রহমান অবস্থা ভাল নয় ।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার ফুয়াদ রুহানী জানান, আহতের বড় ভাই বাদী হয়ে আটক ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। আসামীদেরকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ