Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

শুরুতেই মুখোমুখি গার্দিওলা-ক্লপ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০০ এএম

কমিউনিটি শিল্ডের ম্যাচ দিয়ে মৌসুম শুরু হতে যাচ্ছে ইংলিশ ফুটবলে। আজ প্রথম দিনেই মুখোমুখি হচ্ছে গত মৌসুমের সবচেয়ে শক্তিশালী দুই দল লিভারপুল ও ম্যানচেস্টার সিটি।

মাত্র এক পয়েন্টের ব্যবধানে লিভারপুলেকে পিছনে ফেলে গত মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা ধরে রেখেছিল সিটিজেনরা। লিগের শেষ দিনে সিটির শিরোপা নিশ্চিত হয়। ইংলিশ শীর্ষ লিগের পর্দা উন্মোচনের প্রথাগত ম্যাচটিতে কাল ওয়েম্বলিতে মুখোমুখি হচ্ছে এই দুই দল। গত মৌসুমে লিগ ছাড়াও এফএ কাপ ও লিগ কাপের শিরোপা জিতেছে সিটিজেনরা। টানা তৃতীয় লিগ শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে স্বাভাবিকভাবেই তারা ফেবারিটের তালিকায় শীর্ষেই থাকবে। তবে ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলের চ্যালেঞ্জও যে মোটেই সহজ হবে না তা সহজেই অনুধাবন করতে পারছেন গার্দিওলা। জুনে টটেনহ্যামকে পরাজিত করে ষষ্ঠ ইউরোপীয়ান শিরোপা ঘরে তুলেছিল জার্গেন ক্লপের লিভারপুল। সা¤প্রতীক সময়ে ট্রান্সফার মার্কেটে সিটির বড় অর্থলগ্নি নিয়ে ক্লপের বিদ্রুপ খুব একটা ভাল চোখে দেখেনি গার্দিওলা। এ নিয়ে দুই কোচের মধ্যে বেশ ঠান্ডা লড়াইও চলেছে। তারপরেও আনফিল্ডে তিলে তিলে গড়ে ওঠা বর্তমান লিভারপুলের সাফল্যের পিছনে পুরো কৃতিত্বই ক্লপকে দিয়েছেন গার্দিওলা। এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ক্লপ আমাকে অনেক দিক দিয়ে অনুপ্রাণীত করেছে। সে একজন শীর্ষ সারির কোচ। যখনই আমি তার দলের বিপক্ষে মাঠে নামি তখনই ভিন্ন একটি চ্যালেঞ্জ অনুভব করি।’

১৯৯০ সালের পর থেকে সিটিজেনরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও লিভারপুল ইংলিশ লিগের শিরোপার দেখা পায়নি। অধরা এই ট্রফিগুলোর দিকেই এবার দু’দলের দৃষ্টি থাকবে সবচেয়ে বেশি। গার্দিওলা বিশ্বাস করেন কমিউনিটি শিল্ডের বিজয়ী সিটিজেনদের সব ধরনের ক্ষমতা আছে। তাদের সামনে সুযোগ নগর প্রতিদ্ব›দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পর হ্যাটট্রিক শিরোপা শিরোপা ঘরে তোলার। সে কারনেই তিনি শুধুমাত্র ইউরোপীয়ান আসরের দিকেই মূল নজর দিতে নারাজ। গত মৌসুম সম্পর্কে গার্দিওলা বলেছেন, ‘আমরা প্রায় সব শিরোপাই ঘরে তুলেছি। তারপরেও কিছু বাকি রয়েছে। নতুন মৌসুমে একেবারে শুন্য থেকে সব শুরু হবে। তবে যেকোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত।’

লিভারপুলের প্রচণ্ড চাপ সত্তেও খেলোয়াড়রা যে ধরনের পরিণত পারফরমেন্স দেখিয়েছে তাতে গার্দিওলা এবারও সাফল্যের ব্যপারে আশাবাদী, ‘এবার আমরা আরো ভাল করবো। গতবারের পারফরমেন্স দিয়ে এই খেলোয়াড়রা আমাকে আশ্বস্ত করেছে।’

কালকের ম্যাচে গার্দিওলা দলে পাচ্ছেন না এডারসন, রিয়াদ মাহারেজ, সার্জিও আগুয়েরো, গ্যাব্রিয়েল জেসুসদের। আন্তর্জাতিক দায়িত্ব শেষে সদ্যই তারা দলে যোগ দিয়েছেন।

প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতিতে লিভারপুল অবশ্য নিজেদের এগিয়ে রাখতে পারছে না। তিনটি পরাজয় ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নদের আত্মবিশ্বাসে কিছুটা হলেও ঘাটতি ধরিয়েছে। আফ্রিকান নেশন্স কাপের কারণে সাদিও মানে এখনো বিশ্রামে রয়েছেন। যদিও আন্তর্জাতিক ম্যাচ শেষে দলে ফিরেছেন রবার্তো ফিরমিনো, আলিসন বেকার ও মোহাম্মদ সালাহ। ক্লপ বলেছেন, ‘একজন খেলোয়াড় যখন পরিশ্রান্ত থাকে তখন তার কাছ থেকে সেরা খেলাটা কখনই আশা করা যায় না। তবে দলের অবস্থা এই মুহূর্তে ভাল।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গার্দিওলা-ক্লপ
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ