Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

মশা মারতে নিষিদ্ধ ওষুধ আনছে সরকার

আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০০ এএম

মশা মারতে সরকার নিষিদ্ধ ওষুধ আমদানি করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, মশার ওষুধ কার্যকর হচ্ছে না। হবে কোত্থেকে? যে দুর্নীতি তারা করে, তাতে তো কার্যকর হওয়ার কথা না। এখন নতুন ওষুধ আনবে, সেখানে আরও দুর্নীতি হবে। পত্রিকাতে এসেছে, থাইল্যান্ডে যে দুইটা দুইটা ওষুধ একেবারেই নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সেই দুইটা ওষুধ নাকি আনা হচ্ছে। গতকাল (রোববার) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর ৩০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘মুক্ত হোক গণতন্ত্র, নিশ্চিত হোক সুস্বাস্থ্য’ শীর্ষক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, এমন একজন স্বাস্থ্যমন্ত্রী আছেন, ডেঙ্গুতে কতজন মারা গেছেন তিনি বলতে পারবেন না। এটা তার জানা নেই। যখন ডেঙ্গু চরম আকার ধারণ করেছে তার আগে উনি বললেন, এডিস মশা নাকি রোহিঙ্গাদের মতো। কত বড় অমানবিক হলে, কত বড় অমানুষ হলে এই ধরনের কথা একজন মন্ত্রীর মুখ দিয়ে আমাদের শুনতে হয়। পরবর্তীকালে উনি মালয়েশিয়ায় গেলেন, কেন গেলেন জানি না, পত্র-পত্রিকায় বেরিয়েছে ব্যক্তিগত কাজে গিয়েছেন। ফিরে আসার পরে তিনি বলছেন, তিনি জানেন না কতজন মারা গেছেন। বলছেন, ১৬শ থেকে ১৭শ আক্রান্ত হয়েছে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, অনির্বাচিত সরকার যারা আছেন, যারা ভোটে নির্বাচিত হয়নি, গায়ের জোরে বন্দুকের জোরে যারা বসে আছেন তাদের কাছে পরিস্কার করে বলতে চাই, সময় শেষ হওয়ার আগেই এই সংসদ বাতিল করুন। এই নির্বাচন বাতিল করুন। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। অন্যথায় এদেশের জনগণ জানে কিভাবে এই ধরনের সরকারকে পরাজিত করতে হয়।
বিএনপি নেতাকর্মীদের হতাশ না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করার চেষ্টা করছি। তারাই একমাত্র এই অবস্থা থেকে দেশ ও রাষ্ট্রকে মুক্তি দিতে পারে। আমি বলব, কেউ হতাশ হবেন না, আপনাদের হতাশা পেরিয়ে আশার আলো নিয়েই সামনের দিকে এগুতে হবে। ড্যাবের উদ্দেশে তিনি বলেন, ড্যাব এখানে বড় ভ‚মিকা পালন করতে পারে। এই যে মানুষের সঙ্গে আপনারা মিশে গেছেন, এখন যাচ্ছেন, মানুষের কাছে যান। বিপ্লবী মনীষী মাও সে তুং বার বার এই কথা বলেছেন- হোয়েন দ্য ক্রাইসিস, গো টু দ্য পিপল, লার্ন ফ্রম দেম অ্যান্ড কাম ব্যাক অ্যান্ড ইমপ্লিমেন্ট। এটাই এখন আমাদের মূল কাজ।

খালেদা জিয়া নূন্যতম ন্যায় বিচার পাচ্ছে না উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, বিচার ব্যবস্থাকে পুরোপুরিভাবে এই অপশক্তি নিয়ন্ত্রণ করছে। এক এগারোর মূল মিশনটাই ছিল বাংলাদেশকে বিরাজনীতিকিকরণ করা। এখানে কোনও রাজনীতি থাকবে না, রাজনৈতিক শক্তিগুলোকে ধ্বংস করে দেয়া হবে। সেই ধারাবাহিকতায় আজকে আওয়ামী লীগের সরকার সেটা বাস্তবায়ন করছে। আজকে এদেশে কোনো রাজনীতি নেই। তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালে সব পত্রিকা বন্ধ করে দিয়ে সব রাজনৈতিক দলকে আওয়ামী লীগ নিষিদ্ধ করেছিল। আজকে ভিন্ন আঙ্গিকে একদলীয় শাসন বাস্তবায়ন করেছে।

গত ২৫ মে কাউন্সিলরদের ভোটে হারুন আল রশিদ ও আব্দুস সালামের নেতৃত্বে ড্যাবের নতুন কমিটি নির্বাচিত হয়, যারা ৯ জুলাই জাতীয় কাউন্সিলের মাধ্যমে ড্যাবের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।
ড্যাবের সভাপতি প্রফেসর হারুন আল রশীদের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম মহাসচিব ডা. মেহেদী হাসানের পরিচালনায় এই আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য প্রফেসর সিরাজউদ্দিন আহমেদ, প্রফেসর আব্দুল কুদ্দুস, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের কাদের গনি চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের রিয়াজুল ইসলাম রিজু, এগ্রিকালচারিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের শামীমুর রহমান শামীম, ড্যাবের মহাসচিব আব্দুস সালাম, সিনিয়র সহসভাপতি আবদুস সেলিম, কেন্দ্রীয় নেতা ডা. রফিকুল ইসলাম, ডা. কাজী মাজহারুল ইসলাম দোলন, ডা. জহিরুল ইসলাম শাকিল, ডা. ওবায়দুল কবির খান, ডা. একেএম ফরিদ উদ্দিন।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন