Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

মিডিয়া না থাকলে সরকার ডেঙ্গুকে গুজব বলে উড়িয়ে দিতো -মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৫৯ পিএম

মিডিয়া না থাকলে সরকার ডেঙ্গু মহামারিকে গুজব বলে উড়িয়ে দিতো বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দেশে ডেঙ্গুর মহামারি চলছে। সারাদেশের মানুষ চরম আতঙ্কে রয়েছে। আর এটা নিয়ে সরকারদলীয় লোকেরা হাসি-তামাশা করছেন। আজকে যদি মিডিয়া বিষয়টিকে গুরুত্বসহকারে তুলে না ধারতো হালেও সরকার ডেঙ্গুর এই মহামারিকে গুজব বলে উড়িয়ে দিতো।

সোমবার (৫ আগস্ট) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্তদের সাহায্যার্থে জাতীয়তাবাদী সেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকের পত্রিকায়ও আছে, গতকাল রোবববার এক হাজার ৭৬০ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে শুধু ঢাকায়। আর এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১৭ হাজারের ওপরে। অথচ মন্ত্রী যিনি দায়িত্বে আছেন, মেয়র সাহেবরা কি বলেছেন সেটা রিপিট করতে চাই না। আসলে এদের কোনো লজ্জা নেই, শরম নেই, হায়া নেই, যেটাকে বলে বেহায়া, বেশরম। এরা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। যেহেতু তাদের জবাবদিহিতা নেই। তাদের একমাত্র উদ্দেশ্য হচ্ছে যেকোনও প্রকারে ক্ষমতায় টিকে থাকা এবং জনগণের অর্থকে লুণ্ঠন করা। সংসদ তো এখন কিছুই নেই। ওখানে তথাকথিত তাদের পছন্দমতো একটা বিরোধীদল দাঁড় করিয়ে রেখেছে। এই সরকার একেবারেই গণবিরোধী একটা সরকার। জনগণের স্বার্থবিরোধী সরকার। মানুষের ন্যূনতম অধিকার লুণ্ঠনকারী সরকার।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, কয়েকদিন আগে জেনেভায় মানবাধিকারের ওপরে নির্যাতনবিরোধী একটা গুরুত্বপূর্ণ কনভেনশন হয়েছে। বর্তমান সরকার ১০/১২ বছর যাবত ক্ষমতায়, কিন্তু কোনো জবাবদিহিতা করেনি। জাতিসংঘের ওই কমিটি নিজেরা উদ্যোগ নিয়ে বাংলাদেশকে ডেকে বাংলাদেশে যে নির্যাতন হয় সে সম্পর্কে সরকারের বক্তব্য কী জানতে চেয়েছে। সেখানে আমাদের আইনমন্ত্রী অবলীলায় মিথ্যা কথা বলেছেন। আইনমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশে কোনো গুম-খুনের ঘটনা তার নাকি জানা নেই। কিন্তু গত দু’দিন ধরে একজন সিনিয়র সাংবাদিক নিখোঁজ। আমাদের দলের প্রায় ৫০০ নেতাকর্মী এখনও নিখোঁজ।

বিএনপির এই অন্যতম শীর্ষ নেতা বলেন, আমাদের এমপি ছিলেন ইলিয়াস আলী, চৌধুরী আলম কমিশনার ছিলেন তাদের এখন পর্যন্ত খুঁজে পাইনি। আমাদের ছাত্রদল, ‍যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, বিএনপির প্রায় ৫০০ নেতাকর্মী গুম হয়ে গেছে। তাদের খুঁজে পাওয়া যায়নি। আমরা এমন দেশে বাস করছি যেখানে আমাদের জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই। সরকার নিজেদের সুরক্ষার জন্য দুর্নীতি করছে এবং দুর্নীতির টাকা দিয়ে বিদেশে বাড়ি বানাচ্ছে। যেখানে তারা বসবাসের জন্য ব্যবস্থা করছে।

এসময় রক্তদান কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব হাবীব উন নবী খান সোহেল, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল প্রমূখ।



 

Show all comments
  • M N Ahmed ৭ আগস্ট, ২০১৯, ৬:৩৭ পিএম says : 0
    Mr. Fakhrul, don't you know yet that an important member of government (Boyati/Baul Mumtaz) already said that Dengue is a rumour?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ