Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

রাজশাহীতে ঈদের ছুটিতে বাড়ি যাবার জন্য স্টেশনে যাবার পথে কলেজছাত্র খুন

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০১৯, ১০:৪০ এএম | আপডেট : ১১:১৮ এএম, ৬ আগস্ট, ২০১৯

ঈদের ছুটিতে বাড়ি যাবার জন্য স্টেশনে যাবার পথে রাজশাহী সিটি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ফারদিন আশারিয়া রাব্বিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে মহানগরীর হেতেমখাঁ ও বর্ণালীর মোড় এালাকার মাঝামাঝি সড়কে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাব্বির বাড়ি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর থানার মমিনপুর গ্রামে।
স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে নিহত কলেজছাত্রের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড নাকি ছিনতাইকারীদের আঘাতে রাব্বি নিহত হয়েছেন প্রাথমিকভাবে তা নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। বর্তমানে এ ব্যাপারে ওই এলাকার আশপাশের লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে হত্যার পর সেখানে লাশ ফেলে রেখে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই তার ব্যাগ, মানিব্যাগ ও মোবাইল ফোন পড়েছিল।
রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র ও অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান, মরদেহ উদ্ধারের সময় তার সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করা হয়। এ সময় রাব্বির মাথার ওপরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দেওয়ার চিহ্ন পাওয়া গেছে। মাথা থেকে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার পরিচয় সনাক্তের পর পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে। বাড়ি যাওয়ার আগে রাব্বি রওনা দেওয়ার কথা পরিবারকে জানিয়েছিল।
ভোরে ছাত্রাবাস থেকে বের হওয়ার সময় বোনের সঙ্গে কথা হয়েছিল তার। বোনের সাথে কথা বলার কিছুক্ষণ পর পরই এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। এরপর থেকে পরিবারের সদস্যরা বারবার তার মোবাইলে ফোন করেও পাচ্ছিলেন না। লাশের কাছে পাওয়া তার মোবাইল ফোন থেকেই রাব্বির পরিবারের সঙ্গে কথা হয় পুলিশের। পুলিশের কাছে থেকেই পরিবারের সদস্যরা জানতে পারেন যে, রাব্বি হত্যাকান্ডের শিকার হয়েছেন। এরই মধ্যে তারা রাজশাহীর উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ আটক হয়নি। তবে অভিযান শুরু হয়েছে। #



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কুপিয়ে হত্যা


আরও
আরও পড়ুন