Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মুহাররম ১৪৪৪

বগুড়ায় শিয়া মসজিদে হামলায় জড়িত জেএমবি সদস্য পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

প্রকাশের সময় : ৮ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বগুড়া অফিস : বগুড়ার শিবগঞ্জে শিয়া মসজিদে হামলার সাথে সরাসরি জড়িত জেএমবি সদস্য কাউছার আলী (২৫) পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে। সে জয়পুরহাটের কমরগ্রামের আমির আলরি ছেলে। বুধবার ভোর রাতে শিবগঞ্জের বুড়িগঞ্জ ইউনিয়নের জামতলী ব্রিজের নিকটে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এসময় দুই পুলিশ কনস্টেবল আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, ২ রাউন্ড গুলি, ২টি গুলি খোসা, ৫টি হাতবোমা, ২টি ছোরা, একটি চাপাতি উদ্ধার করেছে।
জেলা পুলিশের মিডিয়া সেলের দায়িত্ব প্রাপ্ত সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) গাজিউর রহমান জানান, নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাতুল মুজাহেদিন জেএমবি) সদস্য মঙ্গলবার দিবাগত শেষে শিবগঞ্জ উপজেলার কোন একটি স্থাপনায় হামলা চালাতে পারে এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল শিবগঞ্জ-পীরব সড়কের বুড়িগঞ্জ ইউনিয়নের জামুরহাট-জামতলী ব্রিজের কাছে অবস্থান নিয়ে ওঁত পেতে থাকে। ভোর রাত আনুমানিক সাড়ে ৩টার দিকে ৩/৪ জন যুবক ব্যাগ হাতে ব্রিজের কাছাকাছি এলে পুলিশ তাদের থামতে বলে। এসময় ওই যুবকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েকটি হাতবোমা নিক্ষেপ করে। এসময় পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে জেএমবি সদস্যরাও গুলি করতে করতে পালাতে থাকে। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে থেমে যাওয়ার পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় গুলিবিদ্ধ জেএমবি সদস্য কাউছারকে আটক করে পুলিশ। হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে পুলিশের নিকট সংরক্ষিত ছবি দেখে তারা নিশ্চিত হয় যে নিহত যুবক জেএমবি সদস্য এবং সে শিয়া মসজিদে বন্দুক হামলায় সরাসরি জড়িত ছিল। বন্দুক যুদ্ধে পুলিশের দুই কনস্টেবল আবু রায়হান ও আলতাফ হোসেন হাতবোমার স্প্লিন্টারের আঘাতে আহত হয়েছে। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত জেএমবি সদস্যের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ