Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

আঞ্চলিক দারিদ্র্য এখনো বড় চ্যালেঞ্জ: পরিকল্পনামন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০১৯, ৫:৪৬ পিএম

মৌসুমি দারিদ্র্য দূর হলেও আঞ্চলিক দারিদ্র্য মোকাবিলায় এখনো বড় চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, সবার সমন্বিত উদ্যোগে মৌসুমে দারিদ্র্য, মৌসুমি রোগব্যাধী অনেকটাই কমে এসেছে। ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য দূর করার লক্ষ্যের পথেও সরকার অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে নারীদের ক্ষমতায়ন শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন হাঙ্গার প্রজেক্টের গ্লোবাল ভাইস প্রেসিডেন্ট ও কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. বদিউল আলম মজুমদার।

সেমিনারে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, একসময়ে কার্তিক মাসে দারিদ্র্যের সঙ্গে কলেরার মতো রোগ মহামারি হয়ে ছড়িয়ে পড়ত। শীতের মৌসুমে প্রচ- ঠা-ার পাশাপাশি মানুষ ক্ষুধায় ভুগেও মারা গেছে। সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে এ ধরনের মৌসুমি দারিদ্র্য অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। তবে আঞ্চলিক দারিদ্র্য এখনো রয়ে গেছে। এই দারিদ্র্য নিসরনকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

এসডিজির লক্ষ্য অনুযায়ী ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে দারিদ্র্য দূর করা সম্ভব হবে বলে জানান এম এ মান্নান। একইসঙ্গে এসডিজি অর্জন করতে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা, সুশীল সমাজ ও ব্যাক্তি খাতের সবাইকে নিয়ে কাজ করার প্রতি জোর দেন তিনি। অনুষ্ঠানে বদিউল আলম মজুমদার বলেন, এসডিজি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নির্ধারিত হলেও এর বাস্তবায়ন হবে তৃণমূল পর্যায়ে। এ লক্ষ্য পূরণ করতে হলে জনগণের দোরগোড়ায় বিভিন্ন সেবা পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে।

জনগণের উদ্যোগ ও তৃণমূলের প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব ছাড়া এসডিজি অর্জন সম্ভব নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন বদিউল আলম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরিকল্পনামন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন