Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

সরকার কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে মশার ঘুমের ওষুধ এনেছে সাংবাদিকদের রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম

সরকার কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে মশার ঘুমের ওষুধ এনেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলছেন যে, ডেঙ্গুর জন্যে যথেষ্ট ব্যবস্থা নিয়েছে। কী ব্যবস্থা নিয়েছেন? আপনার সিটি করপোরেশন কি ব্যবস্থা নিয়েছে? সিটি করপোরেশন তো এখানে অনেক ধরনের কথা বলেছে, তামাশামূলক কথা-বার্তা বলেছে। কারণ তাদের মশা মারার যে ওষুধগুলো দরকার সেটা ছিলো না।

তারা কোটি কোটি টাকা দিয়ে যে ওষুধ নিয়ে এসেছে সেটা হচ্ছে- মশার ঘুমের ওষুধ, মশা কিছুক্ষণ ঘুমিয়ে থাকবে শান্তির মধ্যে, সেই ওষুধ আনা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে মশা নির্মূল হবে, নিধন হবে সেই ওষুধ আনা হয়নি। সেটা অত্যন্ত স্পষ্টভাবে এটা প্রমাণিত হয়েছে। গতকাল (বৃহস্পতিবার) বেইলি রোডে ডেঙ্গু প্রতিরোধে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণকালে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন। সকাল ১১টায় রুহুল কবির রিজভী জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা-জাসাস নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বেইলি রোড়ে ফুটপাতের দুই পাশের বিপনী বিতান ও সিদ্দেশ্বরী গার্লস স্কুলের সামনে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের কাছে ডেঙ্গু প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ের ওপর দলের লিফলেট বিতরণ করেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, আজকে দুর্যোগ-দুর্বিপাক এই মহামারীতে একেবারে উদাসীন হচ্ছে এই সরকার। গণবিরোধী সরকার এই ধরনের চরিত্র ধারণ করতে পারে। সরকার ডেঙ্গু প্রতিরোধে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়নি বরং এখানে মানুষের জীবন-মৃত্যু নিয়ে খেলা করছে। জনগণকে আমরা সব দিক থেকে সচেতন করার চেষ্টা করছি। আমরা মানুষ বলছি যে আপনারা ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার আগেই আপনারা সর্তক থাকুন এবং এজন্য কী কী করণীয় সেটা ডাক্তাররা সুস্পষ্টাভাবে বলেছেন সেটাই আমরা এই লিফলেটের মধ্যে বলেছি।

ডেঙ্গু নিয়ে গণমাধ্যম আতঙ্ক ছড়াচ্ছে সরকার প্রধানের এরকম বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, যারা ব্যর্থ হয় তাদের মিথ্যার আশ্রয় নিতে হয়, যারা জনকল্যাণের মধ্যে থাকে না তাদেরকে অসত্যের ওপর, মিথ্যার ওপর, বিভ্রান্তির ওপর নির্ভর করতে হয়। কারণ নিজেরাই হচ্ছে ভোটারবিহীন একটি সরকার। এই কারণে তারা মিডিয়ার বিরুদ্ধে বলছে। গণমাধ্যমই একমাত্র প্রতিচ্ছবি, একমাত্র আয়না যেখানে সমাজের নানা অসঙ্গতি ফুটে উঠবে। এটাই হচ্ছে প্রকৃত গণমাধ্যমের বৈশিষ্ট। সেই কাজগুলো গণমাধ্যম করছেন। যখন সত্য উচ্চারিত হবে তখন মিথ্যাবাদীরা ভয় পাবে, এই ভয় থেকে তারা(সরকার) মিডিয়ার বিরুদ্ধে বলেছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমরা সব সময় বলি, প্রাকৃতিক দুযোর্গের একটা সমন্বিত প্রচেষ্টা দরকার। আপনারা দেখছেন আমরা বন্যা উপদ্রæত এলাকায় মানুষের জন্য ত্রাণ নিয়ে যেতে দেয় না। ওরা মনে করে যে, তাদের এটাতে ক্ষতি হয়ে থাকবে, বিরোধী দল আসলে তাদের ক্রেডিবিলিটি থাকবে না। এই ভয় থেকেই তারা এই কাজ করে। তাদের যে ফাঁকি যেটা আছে, তাদের যে ব্যর্থতা আছে, এই ব্যর্থতা ঢাকার জন্য তারা সমন্বিত উদ্যোগ নিতে চায় না, যৌথভাবে এই মহামারী বলুন, প্রাকৃতিক দুযোর্গ বলুন-এটা সরকার মোকাবিলা করতে চায় না। এ সময়ে জাসাসের বাবুল আহমেদ, আহসানউল্লাহ চৌধুরী, মীর সানাউল হক, শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা, জাহাঙ্গীর আলম রিপন, জাহিদুল আলম হিটু, জাকির হোসেন রোকন, শিবা সানু, রমনা বিএনপির নাদিম চৌধুরী প্রমূখ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে বিকাল ৪টায় কাফরুল থানা বিএনপির উদ্যোগে মহামারি ডেঙ্গু থেকে জনগণকে সচেতন করার লক্ষ্যে গণসচেতনতামূলক লিফলেট ও গণসংযোগ করা হয়। কাজীপাড়া বাসষ্ট্যান্ড থেকে শুরু করে রোকেয়া স্মরণীর দুইপাশে ঢাকা মহানগর উত্তরে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল লিফলেট বিতরণ করেন। এসময় ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন মতি, দপ্তর সম্পাদক এবিএমএ রাজ্জাক স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও তাবিথ আউয়াল তেজগাঁও, পল্লবী, তুরাগ, উত্তরা এলাকায় লিফলেট বিতরণ করেন। ##

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রিজভী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ