Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানই নয় আসছে মোহামেডানও

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ আগস্ট, ২০১৯, ৮:০১ পিএম | আপডেট : ৮:৫৯ পিএম, ১০ আগস্ট, ২০১৯

শুরু হয়ে গেছে আয়োজনের তোরজোড়। আগামী অক্টোবরের তৃতীয় সপ্তাহে চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের তৃতীয় আসরের খেলা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের অন্যতম দল চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেডের আয়োজনে এ টুর্নামেন্টে খেলতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারতের তিন বড় ক্লাব। শুধু ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগানই নয়, শেখ কামাল ক্লাব কাপে খেলতে বাংলাদেশে আসছে কোলকাতা মোহামেডানও। টুর্নামেন্টে খেলার ব্যাপারে ৯ আগস্ট সম্মতি দিয়েছিল মোহনবাগান। শনিবার দুপুরে কোলকাতা মোহামেডান জানায় তারও খেলছে শেখ কামাল ক্লাব কাপে। আর এদিন বিকেলে ইস্টবেঙ্গল কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন টুর্নামেন্টের অন্যতম উদ্যোক্তা সাইফ পাওয়ারটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন। জানা গেছে, ইস্টবেঙ্গলও সাড়া দিয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনীর ডাকে।

শনিবার কোলকাতা মোহামেডান কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনার পর সেখান থেকে তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইনকিলাবকে বলেন, ‘আমরা কোলকাতা মোহামেডানের সাধারণ সম্পাদক কামারউদ্দিন সহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে আজ (কাল) দুপুরে বসেছিলাম। তারা শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে খেলতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। বিকেলে আমরা ইস্টবেঙ্গল কর্মকর্তাদের সঙ্গে বসছি।’

শেখ কামাল ক্লাব কাপের আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনীর ইচ্ছা ছিল ভারতের দুই বড় ক্লাব মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গলকেই টুর্নামেন্টে খেলতে আমন্ত্রণ জানাবে তারা। তাদের আলোচনায় কোলকাতা মোহামেডান ছিল না। তবে হঠাৎ করেই টুর্নামেন্টে যুক্ত হলো ভারতের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান।

এ প্রসঙ্গে তরফদার রুহুল আমিন বলেন, ‘টুর্নামেন্টে এই অঞ্চলের দল বেশি হলে আসরের আকর্ষণ বাড়বে। তাছাড়া ভারতের ঐতিহ্যবাহী তিন ক্লাবের একসঙ্গে একই টুর্নামেন্টে খেলাটাও একটা বড় ব্যাপার। আমাদের বিশ্বাস তাদের অন্তর্ভূক্তিতে স্টেডিয়ামে দর্শক বাড়বে।’

এবারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে অংশ নেয়া ৮ দলের মধ্যে ৬টির অংশগ্রহণ ইতোমধ্যে নিশ্চিত হয়েছে। এরা হচ্ছে- বাংলাদেশের বসুন্ধরা কিংস, ঢাকা ও চট্টগ্রাম আবাহনী, ভারতের মোহনবাগান, ইস্টবেঙ্গল এবং মোহামেডান। বাকি রইলো দুই দল। এ ব্যাপারে রুহুল আমিনের কথা,‘আমরা নেপাল, ভুটান ও থাইল্যান্ডের মধ্যে যে কোনো দুটি দেশ থেকে বাকি দুই দল নেবো।’ তিনি আরো জানান, ভারতীয় তিন ক্লাবই তাদের মূল দল পাঠাবে বাংলাদেশে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল


আরও
আরও পড়ুন