Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

পাবনায় ঈদ বাজারের শেষ মুহূর্তের বেচা-বিক্রি জমে উঠেছে

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০১৯, ৫:৩৫ পিএম

পাবনায় শেষ সময়ে ঈদুল আযহার বাজার জমে উঠেছে। শেষ মুহূর্তে বেচা-বিক্রি হচ্ছে। পবিত্র ঈদুল আযহায় নতুন শাড়ী, শার্ট-প্যান্ট, জুতা স্যান্ডেলের বাজার পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ মার্কেটের মতো খুব বেশী জমে না। ঈদুল আযহার ঈদ উপলক্ষে ত্যাগের মহিমায় পশু ক্রয়, মশলা .সেমাই, চিনি, গুড়ো দুধ এ গুলো বেশী বেচা-কেনা হয়। তারপরও কাপড়-চোপড়, টুপি, আঁতর-সুরমা ,লুঙ্গি-গামছা বেচা কেনা একবারে কম হয় না। শ্রাবণের শেষে ভাদ্র মাস শুরু না হতেই তাপদাহ অনেক বেশী।তাপদাহ উপেক্ষা করে

এখন বেচা-বিক্রি হচ্ছে রাস্তার উপর (ফুটপাত) দোকানে এবং নিকটবর্তী দোকান-পাটে। এখন বিক্রি হচ্ছে টুপি, আঁতর-সুরমা, লুঙ্গি-গামছা ,গেঞ্জি ও স্যান্ডেল। শহরের আওরঙ্গজেব সড়ক জুড়ে ভ্রাম্যমাণ বেচা-বিক্রি । সড়কের পাশে জুতা-স্যান্ডেলের দোকানে ভিড় জমে উঠেছে। চলবে চাঁদ রাত পর্যন্ত। একটি লুঙ্গি আড়াইশত টাকা থেকে ৬শত টাকা, টুপি ৩০ টাকা থেকে শুরু করে ২ শত টাকা, পাতালা গামছা ১শত থেকে দেড় শত টাকা। স্যান্ডেল -জুতা ( নামী-দামী কোম্পানী ব্যতিরেকে) যার কাছে দরে বিক্রি করা যায় ,তাই করা হচ্ছে। একটি স্যান্ডেল শত টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। স্পঞ্জ স্যান্ডেল বার্মিজ বলে যেগুলো বিক্রি হচ্ছে তার দাম বেশী দেড়শত টাকা। বার্মিজের ছাড়া স্বাভাবিক স্পঞ্জ স্যান্ডেল এক জোড়ার দাম সর্বোচ্চ ৬০ টাকা । ঈদ বাজার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, কাপড়-চোপড়ের দাম খুব একটা বাড়েনি । তবে মশলার বাজার চড়া।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঈদুল আজহা

১১ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ