Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ায় প্রতিবাদের ঝড়

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ১২:৪৮ পিএম

ভারতে আর্থিক কারচুপির অভিযোগে অভিযুক্ত জাকির নায়েকের উস্কানিমূলক মন্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঝড় উঠল মালয়েশিয়ায়। মালেশিয়ার ন্যাশানাল প্যাট্রিয়টস অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, মালয়েশিয়দের উষ্কানি দেওয়া বন্ধ করুক জাকির নায়েক।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার কোটা বারুতে ভারতের মুসলমানদের সঙ্গে মালয়েশিয়ার হিন্দুদের পরিস্থিতির তুলনা করেন জাকির নায়েক। তিনি বলেন, "ভারতে মুসলমানরদের তুলনায় মালয়েশিয়ায় হিন্দুরা দ্বিগুণ সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকে।"

এরপরই তিনি যে মন্তব্য করেন, তাকে ঘিরে ওঠে বিতর্কের ঝড়। জাকির বলেন, "মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ডঃ মাহাথীর মহম্মদের তুলনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি বেশি আনুগত্য প্রকাশ করে মালয়েশিয়ার হিন্দুরা।" মালয়েশিয়ায় বসবাসকারী হিন্দুদের দেশের প্রতি আনুগত্য নিয়ে প্রশ্ন তোলেন জাকির।
জাকিরের এমন মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিতর্কের ঝড় ওঠে আন্তর্জাতিক মহলে। ন্যাশানাল প্যাট্রিয়টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দাতুক মোহম্মদ আরশাদ রাজি বলেন, "জাকির ভারতীয় বংশোদ্ভূত মালয়েশিয়দের বিরুদ্ধে কথা বলে প্রধানমন্ত্রীর সুনজরে আসার চেষ্টা করছেন"। এই ধরণের স্পর্শকাতর বিষয়ে জাকিরের কথা বলার অধিকার নেই বলে জানান তিনি। জাকিরকে ধর্মের ভিত্তিতে তুলনা করার থেকে বিরত থাকতে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

জাকিরের মন্তব্যের কড়া নিন্দা করেন মালেশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারান। তিনি বলেন, "মালেশিয়ায় বিভিন্ন ধর্মের মানুষ থাকেন। তাদের মধ্যে বিভেদ ছড়াচ্ছে জাকির নায়েক।" জাকিরের বিরূদ্ধে এর আগেও বেশ কয়েকবার হিন্দু-মুসলিম বিভেদ ছড়ানোর চেষ্টা অভিযোগ করেন তিনি। তিনি জানান, মালয়েশিয়া থেকে জাকিরকে বিতাড়িত করার চেষ্টা করবেন তিনি।

কুলাসেগারান বলেন, "ভারতে আর্থিক কেলেঙ্কারী ও মৌলবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে জড়িত জাকির নায়েক। সময় হয়েছে তাকে ভারতের প্রশাসনের হাতে তুলে দেওয়ার।"

ভারতে একাধিক আর্থিক কারচুপির সঙ্গে জড়িয়ে জাকির নায়েকের নাম। বিভিন্ন বই ও প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ভারতে মৌলবাদী চিন্তাধারা প্রচারের অভিযোগ রয়েছে জাকিরের বিরুদ্ধে। এর আগে জাকিরকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য মালয়েশিয়াকে অনুরোধ জানিয়েছে ভারত। কিন্তু সেই সময়ে সঠিক বিচার না হওয়ার আশঙ্কায় তাকে ভারতের হাতে তুলে দেয়নি মালেশিয়ার সরকার।



 

Show all comments
  • Nurul Amin ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ৬:৩৮ পিএম says : 0
    ডাঃ জাকির নায়েক শতভাগ সত্য কথা বলেছেন। তাঁর প্রতি কারও এলার্জি থাকলে কিছু করার নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • kuli ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ৫:৫৯ পিএম says : 0
    Jakir is right.
    Total Reply(0) Reply
  • alim ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ৬:০৭ পিএম says : 0
    মালশিয়াতে হিন্দুদের বারাবারি বারসে।বাংলাদেশেও ওদের বারাবারি বারসে।জাকির নায়েক ঠিক বলসে। হিন্দুদের পা চাটা গোলাম রা হিন্দুদের পক্ষেই কথা বলবে। মালশিয়াতে জাকিরের অনেক বন্ধু আছে।অরে বার করতে পারবেনা।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ কায়েস ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ৭:০৩ পিএম says : 0
    আমরা মুসলিমরা ডাঃ জাকির নায়েককে এখনো চিনতে পারিনি।উনি মুসলিমদের জন্য আশীর্বাদ। আমি মনেকরি ডাঃ জাকির নায়েক সঠিক এবং হক কথা বলেন।এই পৃথিবীর মানুষদের মানবতার সঠিক পথ প্রদর্শক
    Total Reply(0) Reply
  • Zabed ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ৮:১১ পিএম says : 0
    সকল বিধর্মীরা ইসরায়েলের পথ অনুসরনকরে বিশ্বেরমুসলমানদের উপর চুড়ান্ত আঘাত করার সিদ্বান্ত নিয়েছে। তাই মুসলিমদের উচিতআল্লাহ ও রাসলের পথ অনুসরন করে ঈমানকে আরো মজবুত করা।
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুল ওয়াহেদ ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০:২৯ এএম says : 0
    ডাঃ জাকির নায়েক বিশ্বের মুসলমানদের জন্য এক বড় নেয়ামত উদারমনা মনে দেখলে উনি বর্তমান বিশ্বে শ্রেষ্ঠ মুসলিম মনীষী। আল্লাহ ডাঃ জাকির নায়েক কে হায়াত দীর্ঘ করে দিও।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Kabir Miah. ১৭ আগস্ট, ২০১৯, ৬:২৭ পিএম says : 0
    He is right. I like Mr Jakir Nayak.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাকির নায়েক

২১ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ