Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

মোহামেডানকে আমন্ত্রণ না জানানোয় সমালোচনা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ আগস্ট, ২০১৯, ৮:৪৫ পিএম

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজনের তোরজোড় শুরু হয়ে গেছে। আগামী অক্টোবরের তৃতীয় সপ্তাহে চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের মাঠে গড়াচ্ছে টুর্নামেন্টের তৃতীয় আসরের খেলা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের অন্যতম দল চট্টগ্রাম আবাহনীর আয়োজনে টুর্নামেন্টে ভারতের ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান ও কোলকাতা মোহামেডান সহ স্থানীয় পাঁচ ক্লাব খেলছে না ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। দেশের ফুটবলের ঐতিহ্যের ধারক ঢাকা মোহামেডানকে আমন্ত্রণই জানানো হয়নি। ফলে সমালোচনার ঝড় উঠেছে দেশের ফুটবলাঙ্গনে। ক্ষেভে ফেটে পড়ছেন মোহামেডান সমর্থকরা। দেশের ফুটবলে বিশেষ অবদান রাখা ঢাকা মোহামেডানকে শেখ কামাল ক্লাব কাপে আমন্ত্রণ না জানিয়ে অবজ্ঞা করা হয়েছে বলে মনে করছেন মোহামেডান সমর্থকরা। আয়োজকদের উদ্দেশ্যে তাদের প্রশ্ন কোলকাতা মোহামেডানের মতো খর্ব শক্তির দলকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় ক্লাব ঢাকা মোহামেডানকে কেন বিবেচনায় আনা হয়নি?

কোলকাতা মোহামেডান এই টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে খেললেও ফুটবলপ্রেমীদের মন ভরাতে পারেনি। ২০১৫ সালে কোলকাতার সাদাকালোরা গ্রুপ পর্বে তলানীর দল ছিল। ওই আসরে একটি ম্যাচও জিততে পারেনি কোলকাতা মোহামেডান। অথচ একই গ্রুপ থেকে ঢাকা মোহামেডান খেলেছিল সেমিফাইনালে। গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ঢাকার সাদাকালোরা ২-১ গোলে হারিয়েছিল কোলকাতার সাদাকালোদের।

এটা আমন্ত্রণমূলক টুর্নামেন্ট। আয়োজকরা এখানে যাকে খুশি তাকেই আমন্ত্রণ জানাতে পারে। কিন্তু ঢাকা মোহামেডানকে অবজ্ঞা করে কি প্রমাণ করলেন চট্টগ্রাম আবাহনী কর্তারা তা বোধগম্য নয় সাদাকালো সমর্থকদের। তাদের বক্তব্য- আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী দেশের ফুটবলপ্রেমীদের মনের ভাষা বুঝতে পারেনি।

শেখ কামাল ক্লাব কাপে এবার অংশ নেয়া ৮ দলের মধ্যে তিনটিই ভারতের এবং কোলকাতার। বাংলাদেশ থেকে খেলছে প্রিমিয়ার লিগের নতুন চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস, রানার্সআপ ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ও আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী। বাকি দুই দলের একটি হচ্ছে গত আসরের চ্যাম্পিয়ন মালদ্বীপের টি.সি. স্পোর্টস ক্লাব অন্যটি হতে পারে থাইল্যান্ডের কোন দল।

ঢাকা মোহামেডানকে আমন্ত্রণ না জানানো প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম আবাহনীর ফুটবল ম্যানেজার ও শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের কো-অর্ডিনেটর শাকিল মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘ঢাকা মোহামেডান ফুটবল দল এত বড় টুর্নামেন্টে খেলার মতো আপ টু দ্য মার্ক নয়। যে মানের দল এবার এই টুর্নামেন্টে খেলবে, ঢাকা মোহামেডান এখন সেই মানের ফুটবল দল নয়। এবারের শেখ কামাল ক্লাব কাপে খেলার মতো দল না বলেই ঢাকা মোহামেডানকে আমরা বিবেচনায় রাখিনি।’

ঢাকা মোহামেডানের ডাইরেক্টর ইনচার্জ লোকমান হোসেন ভুঁইয়া তার দলকে আমন্ত্রণ না জানানোকে দুঃখজনক বলে মনে করেন। তিনি জানান, এবার টুর্নামেন্ট নিয়ে আয়োজকরা মোহামেডান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কোনো আলোচনাই করেনি।

লোকমান বলেন,‘বাংলাদেশে এতবড় একটা টুর্নামেন্ট হচ্ছে অথচ মোহামেডানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এটা দুঃখজনক।’ তিনি যোগ করেন,‘বাংলাদেশের দু’টি দল মোহামেডান ও আবাহনী ঐতিহ্যবাহী। শেখ কামালের নামে এতবড় টুর্নামেন্টে এ দুই দলের খেলা উচিত। আমরা এই টুর্নামেন্টে খেলতে চাই। আমন্ত্রণ জানালে অবশ্যই মোহামেডান খেলবে। কারণ মোহামেডান সব সময়ই সমর্থকপুষ্ট একটি দল। আমরা এই টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে খেলে নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ রেখেছি। আমি মনে করি, মোহামেডান ও আবাহনীর মতো দুই বড় দল থাকলে টুর্নামেন্টে দর্শক সংখ্যার সঙ্গে আকর্ষণও বাড়বে।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল


আরও
আরও পড়ুন