Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

পাকিস্তানের জাহাজ-বিধ্বংসী হারবা ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম

পাকিস্তান তার আজমত-ক্লাস ফাস্ট এ্যাটাক ক্রাফট (এফএসি) পিএনএস হিম্মত থেকে নিজস্ব তৈরি স্থলভাগে হামলার উপযোগী সারফেস-টু-সারফেস এন্টি-শিপ ক্রুজ মিসাইল ‘হারবা’ পরীক্ষা করেছে। ডিফেন্স এন্ড স্ট্রাটেজিক স্টাডিজের টুইটার একাউন্টে এ খবর দেয়া হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রটি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। তবে হারবা এএসসিএম যদি বাবরের একটি সংস্করণ হয় তাহলে এটা অবশ্যই একটি দূরপাল্লার সি-স্কিমিং এএসসিএম হবে বলে প্রতিরক্ষা ও গৌশলগত বিশ্লেষকরা মনে করছেন। সি-৮০২ এএসসিএমের মতো হারবা এএসসিএম ইনারশিয়াল নেভিগেশন সিস্টেম (আইএনএস)-ভিত্তিক মিড-কোর্স গাইডেন্স সিস্টেমের উপর নির্ভর করতে পারে। একই সঙ্গে এতে টার্মিনাল-স্টেট একটিভ-হোমিং সিকার থাকতে পারে। এন্টি-শিপ ওয়ারফেয়ারে একটিভ রাডার-হোমিং (এআরএইচ) ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হলেও হারবা এএসসিএম কোন ধরনের একটিভ সিকার ব্যবহার করছে তা জানা যায়নি। তবে এর বিকল্প হতে পার ইমেজিং ইনফ্রারেড (আইআইআর)। হারবার সম্ভাব্য পাল্লা হতে পারে ৪৫০ থেকে ৭০০ কিলোমিটার। স্থলভাগের টার্গেট শনাক্ত, ট্রাকিং ও মিড-কোর্স গাইডেন্স-এর জন্য আজম-ক্লাস এফএসিতে দূর-পাল্লার রাডার সংযুক্ত নেই। এসএএম।



 

Show all comments
  • ash ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ৯:৩৯ এএম says : 0
    BANGLADESH NEED THEM TOO
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন