Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

চাপাতি পেটে ঢুকে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু

মাদারীপুর জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০১ এএম

মাদারীপুর সদর উপজেলার দুধখালী ইউনিয়নের উত্তর দুধখালী বড়কান্দি গ্রামের আনোয়ার বেপারির বাড়িতে কোরবানির গরু জবাই করার সময় অসাবধানতাবশত কসাইয়ের হাত থেকে চাপাতি ছুঁটে গিয়ে পেটে ঢুকে তার মেয়ে মৌমিতা আক্তার (১০) মারা যায়। ঈদের দিন সোমবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সে দুধখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী ছিলো।

পুলিশ, পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঈদের দিন সকাল ১০টার সময় বাড়ির লোকজন উঠানে কোরবানির গরু জবাই করতে শুরু করে। এসময় কয়েকজন শিশুর সাথে মৌমিতাও দাঁড়িয়ে তা দেখছিলো। এক পর্যায়ে গরু নাড়াচাড়া করলে কসাইয়ের হাতে থাকা চাপাতি ছুঁটে গিয়ে মৌমিতার পেটে ঢুকে যায়। সাথে সাথে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিয়ে পড়ে যায় মৌমিতা। পরে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে দুখখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. নাসির উদ্দিন বেপারি বলেন, বাড়ির লোকজন গরু জবাই করে। পরে রগ কাটার সময় গরুটি দাপাদাপির এক পর্যায় কসাইয়ের হাতে থাকা চাপাতি ছুটে গিয়ে মৌমিতার পেটে ঢুকে যায়। ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতাল ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। নিহতের পরিবার কোন অভিযোগ দেয়নি। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ বলেন, মৌমিতার পেটের ভেতর থেকে শুরু করে আঘাত ফুসফুস পর্যন্ত লেগেছে। এটি বড় ধরণের আঘাত। হাসপাতালে আনার অনেক আগেই ওই শিশুটির মৃত্যু হয়। পরে নিহতের স্বজনরা মৌমিতার লাশ বাড়িতে নিয়ে গেছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন