Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

লালবাগ প্লাস্টিক কারখানায় আগুন, ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ আগস্ট, ২০১৯, ২:১৬ পিএম

লালবাগের পোস্তার চাঁদনীঘাট এলাকায় গতকাল রাত সাড়ে দশটার দিকে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লাগে। সেই ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর আজ বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকালে এই কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটির প্রধান করা হয়েছে ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক (অপারেশন) দীলিপ কুমার ঘোষকে। অন্য দুই সদস্য সহকারী পরিচালক (এডি) আব্দুল হালিম এবং উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) নিউটন দাস। আগামী পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে কমিটিকে।

গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে পুরনো ঢাকার লালবাগের পোস্তার চাঁদনীঘাট এলাকায় অবস্থিত প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লাগে। মুহূর্তেই আশপাশে ছড়িয়ে থাকা টায়ার ও পলিথিনে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট কাজ শুরু করে। তবে সরু রাস্তার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলের কাছে যেতে পারেনি। তা ছাড়া আশপাশে পানির উৎস না থাকায় বেশ বেগ পেতে হয় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের। একপর্যায়ে রাত দেড়টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন তাঁরা।

স্থানীয়রা জানায়, প্লাস্টিক কারখানার শ্রমিকরা ঈদের ছুটিতে ছিল। এ কারণে ওই কারখানা বা এর আশপাশে মানুষের তেমন উপস্থিতি ছিল না।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, লালবাগের পোস্তার চাঁদনীঘাট এলাকায় রাত সাড়ে ১০টার দিকে টিনের ঘরের ওই কারখানায় আগুন দেখতে পাওয়া যায়। এ সময় আশপাশের আরো কয়েকটি কারখানায় আগুন ধরে যায়। আগুনের লেলিহান শিখা দেখে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে পুরো এলাকা।

ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, খবর পাওয়ার পর প্রথমে ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। এরপর আরো একটি গিয়ে সাতটি ইউনিট আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায়। তবে আগুন ছড়িয়ে যাওয়ায় যোগ দেয় আরো আটটি ইউনিট। এর সঙ্গে যোগ দেয় স্থানীয় লোকজন। রাত ১২টার দিকে যোগ দেয় ফায়ার সার্ভিসের আরো একটি ইউনিট। রাত দেড়টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

চকবাজার থানার ওসি মো. সোহরাব হোসেন ঘটনাস্থল থেকে গতমাধ্যমকে জানান, ঘটনাস্থলের আশপাশে বেশ কয়েকটি প্লাস্টিকের কারখানা রয়েছে। পুরনো প্লাস্টিক থেকে এসব কারখানায় নতুন প্লাস্টিক তৈরি করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তদন্ত কমিটি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ