Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

কাশ্মীরে মানবাধিকার নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় উদ্বিগ্ন

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের পর চীনা রাষ্ট্রদূত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে কয়েক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছে এবং জাতিসংঘে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, অধিবেশনটি দেখিয়েছে যে, ওই অঞ্চলের লোকেরা ‘বন্দি হতে পারে, তবে আজ এই জাতিসংঘে তাদের কণ্ঠ শোনা গেল।’
কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বিলোপ ও রাজ্যের মর্যাদা বিলোপ সংক্রান্ত ভারতের সিদ্ধান্ত বিষয়ে আয়োজিত শুক্রবারের কাউন্সিলের বৈঠকের পর মালেহা লোধি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটিই প্রথম এবং শেষ পদক্ষেপ নয়’ এবং ‘জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণের সাথে ন্যায়বিচার করা হলেই এটি শেষ হবে।’
লোধি বলেন, ‘পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে প্রথমবারের মতো এই বিষয়টি নিরাপত্তা পরিষদে বিবেচনায় আনা হল। ‘আমি মনে করি যে, এই বৈঠকটি ভারতের এই দাবিকে বাতিল করে দেয় যে, জম্মু ও কাশ্মীর ভারতের একটি অভ্যন্তরীণ বিষয়।’
চীন ও পাকিস্তান আহূত বৈঠককালে নিরাপত্তা পরিষদ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।
চীনা ইউএন রাষ্ট্রদ‚ত ঝাং জুন বলেন, কাউন্সিলের সদস্যরা জম্মু ও কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ‘সেখানে মানবাধিকার পরিস্থিতি সম্পর্কে’ গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, ‘এটি সদস্যদের সাধারণ দৃষ্টিভঙ্গি যে, সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলিকে এমন কোনো একতরফা ব্যবস্থা গ্রহণ থেকে বিরত থাকতে হবে যা উত্তেজনা আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে, যেহেতু উত্তেজনা ইতিমধ্যে অত্যন্ত তুঙ্গে এবং অত্যন্ত বিপজ্জনক,’ বলেন তিনি। তিনি আরো বলেন, আন্তর্জাতিক স¤প্রদায় একমত যে, কাশ্মীরের বিষয়টি অনিষ্পন্ন। এটি ‘আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত বিরোধ’ এবং জাতিসঙ্ঘ সনদ, নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব এবং দ্বিপক্ষীয় চুক্তি অনুসারে শান্তিপূর্ণভাবে এটির সমাধান করা উচিত। সূত্র : এপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ