Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

নাটোরে চামড়ায় লোকসান গুনছেন ব্যবসায়ীরা

আজিজুল হক টুকু নাটোর থেকে | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

উত্তরাঞ্চলের বৃহত্তম চামড়ার আড়ৎ নাটোরে অবস্থিত হলেও খোদ এখানেই ঈদুল আযহায় কোরবানির পশুর চামড়া বিক্রয়ে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে মৌসুমী ও সাধারণ চামড়া ব্যবসায়ীদের মনে। লাখ লাখ টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে তাদের। কারণ নাটোরের চামড়ার আড়তগুলেতে মালিকরা চামড়া কিনছে না। মৌসুমী ও সাধারণ ব্যবসায়ীরা গ্রাম ও শহর থেকে চামড়া কিনে এনে আড়তগুলোতে বিক্রি করতে না পারায় অনেক ব্যবসায়ী আড়তের সামনে চামড়া ফেলে রেখে চলে গেছেন। আবার শ্রমিক সংকটের কারণে এসব চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণের অভাবে নষ্ট হচ্ছে।
চামড়ার আড়তে সরেজমিনে ঘুরে জানা যায়, নাটোরের চকবৈদ্যনাথ এলাকায় বাংলাদেশের বৃহত্তম কাঁচা চামড়ার আড়ত। ছোট-বড় মিলিয়ে এখানে ২শ’ এর অধিক আড়ৎ আছে। কোরবানির ঈদ মৌসুমে এখানে ৮শ থেকে হাজার কোটি টাকার চামড়া কেনাবেচা হয়। উত্তরাঞ্চল এবং দক্ষিণাঞ্চল মিলে ৩০ টি জেলার চামড়া এখানে আসে। ছোট বড় ব্যবসায়ী ছাড়াও বিভিন্ন মাদরাসা, লিল্লাহ বোর্ডিংয়ের ইমামরাও চামড়া নিয়ে আসে এখানে বিক্রি করতে। সরকার চামড়ার দর বেঁধে দিলেও তা মানছে না কেউই।
মাদরাসা, লিল্লাহ বোর্ডিং, সাধারণ বিক্রতা ও মৌসুমী ব্যবসায়ীরা বলেন কোরবানির পশুর বিক্রিত অর্থ শুধুমাত্র এতিম ও গরীবদের হক। চামড়া বিক্রিত অর্থ থেকেই মাদরাসা ও লিল্লাহ বোার্ডিংয়ের অসহায় ও এতিম বাচ্চারা তাদের খোরপোষের অর্থ পেয়ে থাকে। কিন্তু সরকারের বেধে দেয়া দর অনুযায়ী প্রতিটি গরুর চামড়া ৬শ থেকে ৮শ টাকা দরে বিক্রি হওয়ার কথা থাকলেও এখানে বিক্রি হচ্ছে ১শ থেকে সর্বোচ্চ ৫শ টাকা পর্যন্ত। চামড়া পচনশীল বলে ২৪ ঘন্টার মধ্যে লবণ না মাখালে চামড়া নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই আতংকিত হয়ে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা লোকসান দিয়েও চামড়া বিক্রি করছে।
নাটোরের চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান জানান, ‘ঢাকা হাজারীবাগ থেকে সাভারে ট্যানারী স্থানান্তরের কারণে ট্যানারি ব্যবসায়ীদের অনেক টাকা বিনিয়োগ করতে হয়েছে। তাই তারা আমাদের গত বছরের পাওনা টাকা পরিশোধ করে নাই। এই টাকা না পাওয়ার কারণে আমরা এ বছরে চামড়া কিনতে পারছি না।’
এমন পরিস্থিতিতে চামড়া ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের দাবি সমস্ত সমস্যা নিরসন করে চামড়ার সরকার নির্দেশিত দরে কেনাবেচা করে নাটোরের চামড়া শিল্পের সুনাম অক্ষুন্ন রাখা উচিত।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন