Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১২ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আশুলিয়ায় উপজাতি নারীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১

সাভার থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৪৯ পিএম

ঢাকার সাভারের আশুলিয়ায় স্বামীকে আটকে রেখে উপজাতি (মারমা) এক নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে চার বখাটের বিরুদ্ধে। এদের মধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
রোববার সকালে আশুলিয়া ডেন্ডাবর নতুনপাড়া এলাকা থেকে বখাটে রনিকে আটক করে পুলিশ।
এরআগে গত মঙ্গলবার রাতে ডেন্ডাবর নতুনপাড়া এলাকার ভাড়া বাড়িতে এ ঘটনার পর শনিবার রাতে আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন তিনি।
মামলার আসামীরা হচ্ছে- পাবনা জেলার আটঘরিয়া থানার পাইকপাড়া গ্রামের মন্টু মিয়ার ছেলে রনি (২১), আশুলিয়ার ডেন্ডাবর নতুনপাড়া এলাকার খোরশেদ আলম খোকনের ছেলে জয় (২২), ফরিদপুর জেলার শামীম (২৬) ও ডেন্ডাবর নতুনপাড়া এলাকার কাইয়ুম মোল্লার ছেলে রাজু (২৬)।
মামলার বরাত দিয়ে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রিজাউল হক জানান, অবৈধভাবে মদ তৈরি অভিযোগ তুলে উপজাতি দম্পতির ঘরে ঢোকে চার বখাটে। তাদের কাছে টাকা দাবি করে তারা। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে ওই নারীর স্বামীকে মারধর করে পাশের একটি কক্ষে আটকে রাখে। পরে ওই নারীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তিন বখাটে।
পরে ওই নারীর গলায় থাকায় স্বর্ণের চেইন ও নগদ ১০ হাজার টাকাও হাতিয়ে নেয় তারা।
ধর্ষনের ঘটনা কাউকে জানালে প্রাণ নাশেরও হুমকি দেয় বখাটেরা।
ওসি আরও জানান, উপজাতি নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে রনি নামে এক আসামীকে গ্রেফতার করেছি। অন্যদেরও গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
ধর্ষনের শিকার ওই নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণধর্ষণ

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ