Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১২ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

চাঁদপুরে শিক্ষিকা জয়ন্তি হত্যায় ২ খুনির স্বীকারোক্তি

চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০১৯, ৫:১৩ পিএম

চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তি হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। হত্যাকা-ের মূল হোতা আনিছ ও জামাল নামের ২ ডিসের কর্মচারীকে আটকের পর রহস্য উন্মোচন করা সম্ভব হয়। আটক ডিসের কর্মচারী হত্যাকা-ের সাথে জড়িত রয়েছে বলে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে বলে পিবিআই প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
রোববার বিকেল তিনটায় চাঁদপুর ওয়ারলেস বাজার এলাকার পিবিআই কার্যালয়ে এসপি মোঃ ইকবাল প্রেস ব্রিফিং মাধ্যমে এ তথ্য জানান।

হত্যাকা-ের পূর্ব মূহুর্ত থেকে শেষ পর্যন্ত ঐ বাড়িতে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে কারা অবস্থান করেছে তা চিহ্নিত করে পিবিআই। আধুনিক টেকনোলজি ব্যবহার করে পিবিআই হত্যাকা-ের মূল হোতা ডিশের কর্মচারী আনিছুর রহমান ও জামাল হোসেন ঘটনার সময় ওই বাড়িতে অবস্থান করেছে এ তথ্য নিশ্চিত হন।

ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে তাদের দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ । তারা দুজনে চাঁদপুর ক্যাবল নেটওয়ার্কের স্টাফ হয়ে ডিস লাইনম্যান হিসেবে বাসা বাড়িতে সংযোগ দিতো।

পিবিআই এসপি মোঃ ইকবাল জানান, সারাদেশে যখন পদ্মা সেতু নিয়ে গলাকাটা গুজব ছড়িয়েছে ঠিক তখনই চাঁদপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্টাফ কোয়ার্টারে গলা কেটে শিক্ষিকা জয়ন্তীকে হত্যা করা হয়। জয়ন্তি হত্যাকা-ের ঘটনায় প্রথমেই হত্যার কোন ক্লু না পাওয়া গেলেও কিছুদিনের মধ্যেই মূল হোতাদের আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। আধুনিক টেকনোলজি ব্যবহার করে মূল হোতাদের আটক করা ও ঘটনার রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হয়।

আটক ডিসের স্টাফ আনিছ ও জামাল ঘটনার দিন দুপুরে কোয়ার্টারে গিয়ে শিক্ষিকা জয়ন্তীকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। তিনি ডাকচিৎকার দিতে শুরু করলে ঘাতকরা বাসায় টেবিলে রাখা ফল কাটার ছুরি নিয়ে শিক্ষিকা জয়ন্তীর গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

উল্লেখ্য, গত ২১ জুলাই রোববার বিকেলে পুলিশ চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্টাফ কোয়ার্টার থেকে ষোলঘর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বীকারোক্তি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ