Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানা এলাকা হতে ৩৬২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী আটক

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০১৯, ১২:৫১ পিএম

বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম প্রধান কারণ মাদকাসক্তি। দেশের যুবসমাজের একটি বড় অংশ আশংকাজনকভাবে মাদক হিসেবে ব্যবহৃত গাঁজা, ইয়াবা ট্যাবলেট, ফেন্সিডিল, হেরোইনসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্যের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ছে। মাদকের টাকা জোগাড় করার জন্য মাদকাসক্ত যুব সমাজ বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক কার্যকলাপ, অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অবৈধ কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে। “বাংলাদেশ আমার অহংকার” এই স্লোগান নিয়ে র‌্যাব যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দেশব্যাপী বিভিন্ন মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে যা দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক ইতোমধ্যেই বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৮, সিপিসি-২, ফরিদপুর ক্যাম্প গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানাধীন কালীবাড়ি বাজার এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী অবৈধ মাদক দ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রয় কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। এ প্রেক্ষিতে ১৮/০৮/২০১৯ ইং তারিখ রাতে গোপন উৎস থেকে ভাংগা থানাধীন কালীবাড়ি বাজারস্থ মনি মুক্তা জুয়েলার্স দোকানের মধ্যে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেটর ক্রয়-বিক্রয় হবে বলে সংবাদ পাওয়া গেলে উক্ত সংবাদের সত্যতা যাচাই এর জন্য ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্প গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যহত রাখে এবং সংবাদের সত্যতা পায়। এ প্রেক্ষিতে ১৮/০৮/২০১৯ ইং তারিখ রাতে সিপিসি-২, ফরিদপুর র‌্যাব ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল ভাংগা থানাধীন কালীবাড়ি বাজারস্থ মনি মুক্তা জুয়েলার্স দোকানের মধ্যে হতে মাদক ব্যবসায়ী আসামী ১। মোঃ সাজ্জাদ খান (২৬), পিতা- মোঃ আমির হোসেন খান, ০২। মোঃ আনোয়ার হোসেন (৩৫), পিতা- আব্দুস সালাম ব্যাপারী উভয় সাং- মানিকদহ, থানা-ভাংগা, জেলা-ফরিদপুর, ০৩। সজল সাহা (১৯), পিতা- দীপক সাহা, সাং- বাইশরশি, থানা- সদরপুর, জেলা- ফরিদপুর, ০৪। রিপন কুমার দাস, পিতা- মৃত রতন কুমার দাস, সাং- জামালপুর, থানা-বালিয়াকান্দি, জেলা-রাজবাড়ীদেরকে আটক করে। এ সময় আসামীদের হেফাজত থেকে সর্বমোট ৩৬২ (তিনশত বাষট্টি) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ০৫টি সীমকার্ডসহ ০৪টি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়। ধৃত আসামীদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ মাদক দ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট নিজ হেফাজতে রেখে ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানাসহ ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় পাইকারী ও খুচরা বিক্রিয় করে থাকে।

উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট ও অন্যান্য আলামতসহ গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানায় হস্তান্ত করে আসামীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটা মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আটক

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ