Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

কাশ্মীর পরস্থিতি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করায় শেহলা রশিদের বিরুদ্ধে মামলা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ আগস্ট, ২০১৯, ২:৪৬ পিএম

দিল্লির জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের এর প্রাক্তন ছাত্রনেতা (ছাত্রী)  ও ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ভিপি শেহলা রশিদ জম্মু কাশ্মীর এর পরস্থিতি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অসত্য খবর পোস্ট করেছিলেন বলে অভিযোগ করা হয়। তবে শেহলা রশিদ দাবি করেছেন এসব গোপন ও অপ্রকাশিত তথ্য। 

শেহলা রশিদের ওই দাবিকে নস্যাৎ করে, সমস্ত খবরকে ভুয়া বলে জানিয়ে দেয় ভারতীয় সেনা। ভারতীয় সেনার বক্তব্যের পর এবার সুপ্রিম কোর্টে  এর আইনজীবী অলোক শ্রীবাস্তব শেহলা রশিদের ওপর ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগ এনে তাঁর উপর অপরাধিক মামলা দায়ের করেন এবং শেহলাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

শেহলা রশিদ কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন সময় প্রাপ্ত খবর নিয়ে ১০ টি ট্যুইট করেছিলেন। শেহলা রশিদ নিজের ট্যুইটে দাবি করেছিলেন যে, বর্তমানে কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুবই খারাপ। শেহলা রশিদ লিখেছিলেন, জম্মু কাশ্মীরের মানুষ উনাকে বলেছেন যে, কাশ্মীরের সেনা আর পুলিশ রাতে কাশ্মীরিদের বাড়ি ঢুকে বাচ্চাদের বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। এমনকি বাড়ির খাবারও নষ্ট করে দিচ্ছে তাঁরা।
 
এই সময় কাশ্মীরের দ্বায়িত্ব প্যারামিলিটারি ফোর্সের হাতে আছে। শেহলা রশিদ ট্যুইট করে লেখেন, শুধুমাত্র একজন জওয়ানের নৈতিক কথা বলায় তাকে কাশ্মীর থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও রাতে কাশ্মীরের মানুষদের ঘরে ঢুকে বাচ্চাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছেন শেহলা রশিদ।

শেহলা রশিদ আরও একটি ট্যুইট করে লেখেন, শোপিয়ানে জিজ্ঞাসাবাদের নামে চারজনকে আর্মি ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে অমানবিক অত্যাচার করা হয়েছে। শেহলা রশিদের সমস্ত দাবিকে খারিজ করে ভারতীয় সেনা সমস্ত খবরকে ভুয়া বলে জানিয়েছে। সেনা জানায়, অসামাজিক সংগঠন দ্বারা এরকম অসত্য খবর আর গুজব ছড়িয়ে কাশ্মীরের মানুষকে উস্কে দেওয়া চেষ্টা করা হচ্ছে।

এদিকে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অলোক শ্রীবাস্তব সোমবার শেহলার বিরুদ্ধে তার টুইটের ভিত্তিতে এই মামলাটি করেন। তিনি বলেছেন, শেহলা রশিদ আন্তর্জাতিকভাবে ভারত ও ভারতীয় সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তি নষ্ট করার কাজ করছেন। তিনি একটি এজেন্ডার আওতায় ভারতবিরোধী লবির পক্ষে কাজ করছেন। তিনি কেবল জম্মু ও কাশ্মীরের অস্থিতিশীলতা এবং পরিবেশকে নষ্ট করার চেষ্টা করছেন তা নয়, ভারতের ভাবমূর্তি নষ্ট করারও চেষ্টা করছেন। তিনি বিদেশে একটি লবির পক্ষে কাজ করছেন বলেও অভিযোগ আনেন আইনজীবী।

আইনজীবী আরও বলেছেন, “শেহলা রশিদ তার টুইটের মাধ্যমে ভারতীয় সেনাকে শুধু অসম্মানিত করার চেষ্টা করেননি, সহিংসতা প্ররোচিত করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন। তাঁর অভিযোগ ভিত্তিহীন। তিনি ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালানোর চেষ্টা করছেন। 



 

Show all comments
  • মহিন ২০ আগস্ট, ২০১৯, ৬:১১ পিএম says : 0
    আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনীও বাঙ্গালীদের উপর নির্যাতনের খবর অস্বীকার করতো।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর


আরও
আরও পড়ুন