Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

শীর্ষ পদে জমা ৭৬ মনোনয়নপত্র

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

ছাত্রদলের শীর্ষ দুই পদে নির্বাচনের ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়ে পদপ্রত্যাশীদের মাঝে। তফসিল ঘোষণার আগেই সারাদেশে ভোটারদের কাছে ছুটতে শুরু করেন তারা। তফসিল ঘোষণার পর শুরু হয়েছে ছাত্র সংগঠনটির ষষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম। ১৬ ও ১৭ আগস্ট মনোনয়ন ফরম বিতরণের পর শেষ গতকাল মঙ্গলবার শেষ হয়েছে জমা নেয়ার কাজও। জমা দেয়ার জন্য দুই দিন নির্ধারণ করা হয় এর মধ্যে সোমবার প্রথম দিনে মাত্র মাত্র ৪জন প্রার্থী ফরম জমা দেন। তবে শেষ দিনে গতকাল আরও ৭২জন প্রার্থী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। এর আগে দুটি পদে ফরম সংগ্রহ করেছিলেন ১১০ জন প্রার্থী। তবে উভয় পদের বিপরীতে মোট ৭৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এরমধ্যে ২৭ জন সভাপতি এবং ৪৯ জন সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী।

উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে পদ প্রত্যাশী নেতারা সকাল থেকেই নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আসেন। এসময় তারা বেগম জিয়ার মুক্তির দাবি, তারেক রহমানের মামলা প্রত্যাহারসহ প্রার্থীদের নামে শ্লোগান দিতে থাকেন। পদপ্রত্যাশী নেতা ও তাদের অনুসারীদের মিছিলে মুহুর্মুহু স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে গোটা এলাকা।

গতকালই মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন হওয়ায় বিকেল তিনটার মধ্যেই সংশ্লিষ্টরা তা জমা দেন। এসময় ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের মধ্যে খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, কামরুজ্জামান রতন, আজিজুল বারী হেলাল, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, আব্দুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, হাবিবুর রশিদ হাবিব, আকরামুল হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ছাত্রদলের কাউন্সিলের পুনরায় তফসিল মোতাবেক আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। সভাপতি পদপ্রার্থী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বলেন, আমি সভাপতি পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। কাউন্সিলে সম্মানিত ভোটারবৃন্দ আমার ত্যাগ, যোগ্যতা ও দক্ষতার মূল্যায়ন করবেন। আরেক প্রার্থী মামুন খান বলেন, আমি সভাপতি পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছি। এখন কাউন্সিলরবৃন্দ তাদের সুচিন্তিত মতামত দেবেন। নির্বাচিত হলে ছাত্রদলকে যুগোপযোগী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। অপর সভাপতি পদপ্রার্থী সাজিদ হাসান বাবু জানান, নির্বাচিত হলে আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করাই হবে আমার প্রধান লক্ষ্য। সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী তানজিল হাসান বলেন, সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছি। আশা করি সম্মেলনে কাউন্সিলরবৃন্দ যোগ্য ব্যক্তিকে ভোট দিয়ে নেতা নির্বাচিত করবেন।

ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ছাত্রদলের কাউন্সিল ঘিরে এখন উৎসবমূখর পরিবেশ। প্রার্থীরা ভোট চাচ্ছেন। কাউন্সিলের মাধ্যমে নেতা নির্বাচিত হবে। এটাইতো বিউটি অব ডেমোক্র্যাসি। আরেক সাবেক সভাপতি শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী বলেন, ছাত্রদলের সম্মেলন ঘিরে একটি পরিবেশ তৈরি হয়েছে। কাউন্সিলের মাধ্যমে গণতান্ত্রিকভাবে ছাত্রদলের শীর্ষ দুই নেতা নির্বাচিত হবে। এ নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই।

ছাত্রদলের কাউন্সিলের পুন:তফসিল অনুয়ায়ি জমা দেয়া আবেদনপত্রগুলো থেকে প্রার্থী যাচাই বাছাই করা হবে ২২, ২৩, ২৪, ২৫ এবং ২৬ আগস্ট। খসড়া প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে ২৭ আগস্ট। ২৮ আগস্ট প্রার্থীদের আপত্তি গ্রহণ এবং ২৯ এবং ৩০ আগস্ট প্রার্থীদের আপিল নিষ্পত্তি করা হবে। প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে ৩১ আগস্ট। চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে ২ সেপ্টেম্বর। প্রচারণা চালানো যাবে ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১২ সেপ্টেম্বর রাত ১২ টা পর্যন্ত। ভোট গ্রহণ করা হবে ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা থেকে বেলা ২ টা পর্যন্ত।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ছাত্রদল

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ