Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

এমপি না হয়েও শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন

ল্যান্ড ক্রুজার

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

সংসদ সদস্য না হয়েও টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার স্টেশন ওয়াগন জিপ আমদানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেয়েছেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ‘বাস্তবিক অবস্থার নিরিখে’ শর্তসাপেক্ষে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) তাকে এ সুবিধা দিয়েছে। গত সোমবার এনবিআর’র এক বিশেষ আদেশে বলা হয়, সাবেক সংসদ সদস্য ও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের আমদানি করা একটি টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার স্টেশন ওয়াগন জিপ শুল্কমুক্ত সুবিধায় ছাড় করার লক্ষ্যে জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সুপারিশ অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের মাধ্যমে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে পাঠানো হয়েছে।

বিশেষ আদেশে উল্লেখ করা হয়, পর্যালোচনায় দেখা যায় যে, তিনি (মুহিত) দশম জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য ও অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করলেও ১১তম জাতীয় সংসদে পুননির্বাচিত হননি। সে পরিপ্রেক্ষিতে শুল্কমুক্ত গাড়ি আমদানির সুবিধা প্রাপ্য না হলেও বাস্তবিক অবস্থার নিরিখে এ ক্ষেত্রে উক্তরূপ (শুল্কমুক্ত) সুবিধা প্রদানের বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদিত হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, দ্য কাস্টম অ্যাক্ট ১৯৬৯ এর ২০ ধারা এবং মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২ এর ১২৬(১) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে আমদানি করা গাড়িটি (টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার-ভি৮, চেসিজ-JTMHV০৫JX০৪২৭১৭৯২, মডেল-২০১৮) খালাসের ক্ষেত্রে সমুদয় আমদানি শুল্ক, মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক থেকে ৩ টি শর্তসাপেক্ষে অব্যাহতি দেয়া হলো।

শর্তগুলো হল-আমদানি করা গাড়ি আমদানির পরবর্তী পাঁচ বছরের মধ্যে অন্যত্র হস্তান্তর বা বিক্রি করা যাবে না। তবে শর্ত থাকে যে, গাড়ি আমদানির পর পাঁচ বছর অতিবাহিত হওয়ার পূর্বে হস্তান্তর বা বিক্রয় করতে হলে হস্তান্তর বা বিক্রির পূর্বে অব্যাহতি পাওয়া সমুদয় শুল্ক কর সংশ্লিষ্ট শুল্ক ভবনের কমিশনের কাছে পরিশোধ করতে হবে। একই সঙ্গে গাড়ির রেজিস্ট্রেশন হস্তান্তর বা বিক্রির ক্ষেত্রে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কাছ থেকে পূর্ব সম্মতি গ্রহণ করে সংশ্লিষ্ট শুল্ক ভবনে দাখিল করতে হবে। এছাড়া গাড়ি আমদানির তারিখের পরবর্তী পাঁচ বছরের মধ্যে আমদানিকারক মৃত্যুবরণ করলে তার উত্তরাধিকারকে কোনোরূপ শুল্ককর পরিশোধ করতে হবে না। তবে শর্ত থাকে যে, গাড়ির মূল আমদানিকারকের উত্তরাধিকারীর নামে নাম পরিবর্তন ব্যতীত অন্য কারও নামে হস্তান্তর বা বিক্রি করতে হলে অব্যাহতি পাওয়া শুল্ককর সংশ্লিষ্ট শুল্ক ভবনের কমিশনারের কাছে পরিশোধ করতে হবে।



 

Show all comments
  • Syed Imran ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৪০ এএম says : 0
    এগুলো মোটেও কাম্য না
    Total Reply(0) Reply
  • Mahbub Talukder ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৪১ এএম says : 0
    It is no way acceptable.
    Total Reply(0) Reply
  • Mh Ahmed ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৪১ এএম says : 0
    আমাদের দেশে রাজনৈতিক নেতারা নিজেদেরকে দেশের মালিক মনে করে।
    Total Reply(0) Reply
  • Sontosh Nath ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৪২ এএম says : 0
    Those who are ex- ministers or ex-MP they should not avail this type of facilities, as most of them are moneyed people.
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rob ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৪:৪৩ এএম says : 0
    If he have no money to pay tax why he buy luxury
    Total Reply(0) Reply
  • Nannu chowhan ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৮:৫২ এএম says : 0
    Aowamilig bolei kotha!0nara nijeke desher malik mone koren ar desher jonogonke tader golam mone koren, nijeder belai kono bidhi niom ayner riti nitir toakka korenna.Boroi dukkhojonok eai desher proshashonik bebosta....
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ