Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

সেনবাগে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত-৩০

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৭:০১ পিএম

সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষের সময় বেশকিছু দোকান ভাঙচুর ও একটি মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। ঘটনায় পুলিশ চার জনকে আটক করেছে।

বুধবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত সোনাইমুড়ী-সেনবাগ সড়কের পল্লী মঙ্গল এলাকার গোলাপ মেম্বারের বাড়ী এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতদের ও আটককৃতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় আতাউর রহমান ভূঁইয়া স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে ছাতারপাইয়া ১ নং ওয়ার্ড ও ৪নং ওয়ার্ডের মধ্যে একটি প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় গোলকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার জের ধরে বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সোনাইমুড়ী-সেনবাগ সড়কের পল্লী মঙ্গল এলাকার গোলাপ মেম্বারের বাড়ী এলাকায় দুই গ্রামের লোকজন একত্রিত হলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এরই মধ্যে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একে অপরের উপর হামলা করলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। দফায় দফায় এ সংঘর্ষ চলে বিকেল পর্যন্ত। এসময় কয়েকটি দোকানপাটে ভাঙচুর ও স্থানীয় ইউপি মেম্বারের একটি মোটরসাইকেল আগুন দেওয়া হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২৬জন আহত হয়। পরে খবর পেয়ে সেনবাগ ও সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সেনবাগ থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান জানান, এলাকাটি দুই উপজেলার সীমান্তবর্তী হওয়ায় খবর পেয়ে সেনবাগ ও সোনাইমুড়ী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ ৬রাউন্ড শর্টগানের ফাঁকা গুলি করেছে। ঘটনাস্থল থেকে ৪জনকে আটক করা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষ

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ