Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

কঠোর আন্দোলনের হুমকি

ইউপি কমপ্লেক্স স্থানান্তরিত করার চক্রান্ত

মোহনগঞ্জ উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার বড়তলী-বানিয়াহারী ইউনিয়ন পরিষদের অর্র্ধশত বছরের পুরনো ভবনটি কংশ নদের তীরবর্র্তী বরুঙ্কা নামক স্থান থেকে অন্যত্র সড়িয়ে নেয়ার চক্রান্তের প্রতিবাদে এক সাংবাদিক সম্মেলন করেছে এলাকাবাসী। গত বৃহস্পতিবার মোহনগঞ্জ প্রেসক্লাব কার্যালয়ে ওই ইউনিয়নের ১৯টি গ্রামের পক্ষ থেকে তাদের প্রতিনিধিরা এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। 

সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, ওই ইউনিয়নের ১৯ গ্রামের প্রতিনিধিদের পক্ষে বরুংকা গ্রামের বাসিন্দা ও উপজেলা আ.লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মো. নূরুল হক। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,
১৯৬৯ সালে উপজেলা আ.লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত আব্দুল মজিদ আহম্মেদের নেতৃত্বে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ওই ইউনিয়ন ভবন চত্ত¡রে এক পথসভা শেষে ভবনটিতে কিছুক্ষণ সময় কাটিয়ে ছিলেন। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত ওই স্থায়ী ভবনটি বরুংকা থেকে সড়িয়ে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য বেশ কিছুদিন যাবত এলাকার একটি কুচক্রি মহল নানাভাবে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। তাই স্থায়ী এ ভবনটি বরুংকা থেকে অন্যত্র সড়িয়ে না নেওয়ার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে ।
এ সময় উপজেলার বরতলী-বানিয়াহারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু তালেব রতন, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন বকুল, আওয়ামী লীগ নেতা নাজিম উদ্দিন, সমাজ সেবক আলী আহাম্মদ ছদ্দু, আ.লীগ নেতা শামছুল আলম, শফিউল আলম, খোকন মিয়া, উপজেলা যুবলীগ নেতা নাজমূল আলম মুন্না, মাইনুল হাসান রুবেল, নারী ইউপি সদস্য মাকসুদা আক্তার, ইউপি সদস্য আ. রাজ্জাক বাচ্চু, আমিনুল হক ফুলচাঁন, রাকিব হাসানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন। ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন