Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর আবিষ্কার নতুন উভচর রোবট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

সম্পূর্ণ নতুন ধরণের উভচর রোবট তৈরী করলেন বাংলাদেশী বিজ্ঞানী সাদ কাশেম। এই রোবট সমতল কিংবা অসমতল যে কোন জায়গায় চলতে পারে। প্রয়োজনে পানিতে সাঁতার কাটতে কিংবা সিঁড়ি বেয়েও উঠতে পারে।
বর্তমানে কাতার সেনাবাহিনীতে পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে এই রোবট। চার পা বিশিষ্ট এই রোবট ব্যবহার করা যাবে যে কোন অনুসন্ধান কাজে। মানুষের জন্য যেসব জায়গা বিপদজনক বা ঝুঁকিপূর্ণ, সেসব এলাকায় অনুসন্ধান কাজে পাঠানো যাবে এই রোবট। পাথুরে এলাকা, মরুভূমি, বরফ, পাহাড় কিংবা নদী কোন কিছুই বাধা হয়ে দাড়াবে না এর সামনে। রোবটটির পায়ের পাতা বানানো হয়েছে হাঁসের পায়ের অনুকরণে। যা দিয়ে এটি অনায়াসে সাঁতার কাটতে পারে।
রোবটটির আরেকটি বড় বিশেষত্ব হচ্ছে যে এটি অনেক কম খরচেই তৈরি করা যাবে। বাংলাদেশী টাকায় ৪০ হাজারেরও কম খরচ পড়বে একটি রোবট তৈরিতে। সয়ংক্রিয় ভাবেই এটিই চলাফেরা করতে পারে। শব্দ তরঙ্গের মাধ্যমে এটি সামনের বাধা শনাক্ত করতে পারে। এর ভেতরে থাকা সেন্সর পানির উপস্থিতি টের পেলে সাঁতারের প্রক্রিয়া চালু করে নিজে থেকেই। এটি ঘন্টায় ১১৪ মিটার পথ অতিক্রম করতে পারে। ইউটিউবে রোবটটির দুইটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। https://www.youtube.com/watch?v=du9R-pkJYzc I https://www.youtube.com/watch?v=KjaWv5tcZyM|।
বর্তমানে বিজ্ঞানী সাদ কাশেম কাতারের আর্মড ফোর্স একাডেমিক ব্রিজ প্রোগ্রামে রোবটিক্স এন্ড অ্যাডভান্স কম্পিউটিং বিষয়ে লেকচারার হিসেবে নিয়োজিত আছেন। কৃতি এই বিজ্ঞানী অস্ট্রেলিয়ার সুইনবার্ন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স বিষয়ে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেছেন। ঢাকার ধানমন্ডি এলাকায় তার পৈতৃক নিবাস। উভচর রোবট ছাড়াও আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ উদ্ভাবনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ