Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

নজরুল মানবতা ও প্রতিবাদের কবি

সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০০ এএম

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে মানবতা ও প্রতিবাদের কবি উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তিনি ছিলেন অসাম্প্রদায়িক। তার কবিতা অসাম্প্রদায়িক ও মানবতার চেতনার কথা বলে।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদসংলগ্ন কবির কবরে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে তিনি সাংবাদিকদের একথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগস্ট মাস বাঙালির জীবনে শোকাবহ মাস। আগস্ট বেদনার উৎস। এ মাসেই আমরা আমাদের সেরা তিন বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে হারিয়েছি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াসহ আরো অনেকে।

এছাড়া বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুব মহিলা লীগের আয়োজিত শোক সভায় ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুকে যারা রাজনৈতিক ইস্যু হিসেবে বেছে নিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার ষড়যন্ত্রমূলক ফায়দা হিসেবে ব্যবহার করতে চায় তাদের সম্পর্কে সকল বিষয় নলেজে আছে। রোহিঙ্গাদের নিয়ে যারা নোংরা খেলতে চায়, নোংরা খেলা যারা করতে চায়, তাদের ব্যাপারে আমাদের কাছে তথ্য আছে। তাদের ওপর নজর রাখছে সরকার। যথা সময়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের সমাবেশ করা, একই রঙের টি-শার্ট সংগ্রহ, মোবাইল ব্যবহার করার বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, এখানে বিদেশ থেকেও মদদ আছে, আবার বাংলাদেশেও একটা মতলবী মহল আছে। যারা আন্দোলন সংগ্রাম নির্বাচনে ব্যর্থ, তাদের এখন ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কোনো পথ নেই। তারা একবার কোটা আন্দোলনে একবার নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে। এসব আন্দোলনকে পুঁজি করে তারা অতীতে ক্ষমতা দখলের পাঁয়তারা করেছে।
তিনি আরো বলেন, যারা ‘রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে কোনোদিন যাবে না’ বলে বক্তব্য দিচ্ছেন, তাদের কাছে প্রশ্ন বাংলাদেশ কি প্যালেস্টাইন হয়ে যাচ্ছে? এটা সম্পূর্ণ অবাস্তব বক্তব্য। এটা নিয়ে ব্যাখ্যা দেওয়ার কোনও বিষয় নেই। রোহিঙ্গারা নিজ ভূমিতে পরবাসী। এখন তারা আমাদের এখানে আছে, তারা যাতে তাদের ভূমিতে ফিরে যেতে পারে, সে ব্যাপারে সরকার কাজ করছে।

রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক চাপ ক্রমাগত বাড়ছে বলেও দাবি করেন সেতুমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারও বন্ধুহীন দেশ, এ কথা ভাবার সুযোগ নেই। তাদেরও বন্ধু আছে, মিত্র আছে। কাজেই রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার ব্যাপারে যেমন অনাগ্রহ আছে, তেমনি আন্তর্জাতিকভাবে তাদের ওপর চাপও কিন্তু ক্রমাগত বাড়ছে।
বিএনপি মহাসচিবের নিরাপত্তাহীনর অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের বিরোধী দলগুলো সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তা ভোগ করছে। বিরোধী নেতারা যখন যেখানে খুশি অবাধে যাচ্ছেন, বক্তব্য দিচ্ছেন। সরকার ও প্রধানমন্ত্রীকে অশ্রাব্য ভাষায় কথাবার্তা বলছেন। এরপরও নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ কতটা গ্রহণযোগ্য, তা বিচারের ভার দেশবাসীর হাতে ছেড়ে দেন তিনি।

তিনি বলেন, সভা-সমাবেশ করার জন্য কোনও প্রকার হুমকি সৃষ্টি করছে না সরকার। এখন কেউ যদি সভা-সমাবেশ ডেকে ঘরে বসে হিন্দি সিরিয়াল দেখেন, তাহলে কার কী করার আছে। মির্জা ফখরুল ইসলামরা নিজেরাই নিজেদের গুটিয়ে ফেলেছেন। আন্দোলন করার সৎ সাহস তাদের নেই। রংপুরে এরশাদের আসনে আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টিকে ছাড় দেবে কি না, জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা এ পর্যন্ত কোনো উপনির্বাচনে কাউকে ছাড় দেইনি।

যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন, আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামসুন্নাহার রত্মা, কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি প্রমুখ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওবায়দুল কাদের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ