Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

বিল বকেয়া থাকায় ইমরান খানের দপ্তরের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০৮ পিএম

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দপ্তরে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকার কারণে দেশের প্রধানমন্ত্রীর অফিসেরই বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিল বিদ্যুৎ বিভাগ। জানা গেছে, ইসলামাবাদ ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি বুধবার ২৮ আগস্ট একটি নোটিশ পাঠায় ইমরানের অফিসে।

পাকিস্তানি মিডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী,নোটিশে বলা হয় বকেয়া বিল না দিলে বিদ্যুত্ সংযোগ কেটে দেওয়া হবে। গত মাসে বকেয়া বিলের পরিমাণ ছিল ৩৫ লক্ষ টাকা। সেটা চলতি মাসে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪১ লক্ষে। বার বার বিদ্যুত্ কোম্পানির তরফে বকেয়ার কথা মনে করিয়ে দেওয়া হলেও কোনও পদক্ষেপ নেয়নি ইমরানের অফিস। তাই শেষ পর্যন্ত বুধবার বিদ্যুত্ সংযোগ কেটেই দিয়েছে তারা।

বিদ্যুত্ সংযোগ কেটে দেওয়ার পর, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর অফিসের তরফে বিদ্যুতের বিল দেওয়া হয়েছে কিনা বা বিদ্যুত্ কোম্পানিকে বলে ফের সংযোগ পাওয়া গিয়েছে কিনা জানা যায়নি। তবে প্রধানমন্ত্রীর অফিসের বিদ্যুত্ সংযোগ এভাবে কেটে দেওয়া যে যথেষ্ট বিড়ম্বনার, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানে লোডশেডিংয়ের সমস্যা শেষ কয়েক বছর খুব বেড়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে পাকিস্তানেই সব থেকে বেশি লোডশেডিং হয়। এমনও দেখা গেছে, গরমের সময় দিনের অর্ধেকটা সময়ই বিদ্যুৎ ছাড়াই কাটাতে হচ্ছে পাকিস্তানের মানুষকে। ফলে তীব্র গরমে কষ্টের মধ্যে দিন কাটাতে হয়। তার ওপর এভাবে প্রধানমন্ত্রীর অফিসেরই বিদ্যুত্ সংযোগ কেটে দেওয়া সত্যিই নজিরবিহীন।

সূত্র : ডেইলি হান্ট



 

Show all comments
  • anisul ২৯ আগস্ট, ২০১৯, ১২:৩৪ পিএম says : 1
    এরা আবার পরমাণু যুদ্ধের হুমকি দেয় .............. হাভাতে ভিখারির দল :)
    Total Reply(0) Reply
  • SHAWAN SARKER ২৯ আগস্ট, ২০১৯, ৯:৪০ পিএম says : 0
    একজন প্রধান মন্ত্রির বৈদুতিক লাইন কেটে দেয়। দেশে প্রত্যেকটা প্রতিষ্ঠ কতটা স্বাধীনভাবে কাজ করে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন