Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

মোদির মন্তব্য ভালোভাবে নেয়নি আমেরিকা, জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে উদ্বেগ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ আগস্ট, ২০১৯, ২:৪৭ পিএম

ক'দিন আগেই ফ্রান্সে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাশে বসে নরেন্দ্র মোদি বলে এসেছেন জম্মু-কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। কোনও দেশকে তিনি এর সমাধানের জন্য ‘কষ্ট’ দিতে চান না। বলাই বাহুল্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এ ধরনের ব্যঙ্গাত্মক মন্তব্য খুব ভালোভাবে নেয়নি আমেরিকা। আমেরিকার পররাষ্ট্র দফতর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন।

ভারত পছন্দ করুক বা না করুক, আমেরিকা যে অভিভাবকত্ব ফলাতে ভালোবাসে, সেটা কে না জানে! ফলে, জম্মু ও কাশ্মীরের বিষয়ে তারা যে নিজেদের পর্যবেক্ষণ জারি রাখবে ও মতামত দিতে থাকবে, সেটা পরিষ্কার। মার্কিন বিদেশ দফতর জানিয়েছে, কাশ্মীরে নেতাদের গৃহবন্দী করে রাখা ও জনসাধারণের জীবনে নানা রকমের বিধিনিষেধ নিয়ে ওয়াশিংটন খুবই চিন্তিত। মানবাধিকারকে সম্মান করা হোক বলে মন্তব্য করেছে ওয়াশিংটন। এ-ও বলেছে, যা করা হচ্ছে, তা আইন মেনে করা হোক, সকলের সঙ্গে আলোচনায় বসুক ভারত। আমেরিকা এর আগেও কাশ্মীরে মানবাধিকার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।

ওই বিবৃতিতে পাকিস্তানের নাম না করলেও, নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর শান্তি ও স্থিতাবস্থা রাখার বিষয়ে ইসলামাবাদকে সতর্ক করেছে ওয়াশিংটন। বলেছে, সীমান্তে জঙ্গিদের গতিবিধি রোখার বিষয়ে উদ্যোগী হতে হবে। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক মুখপাত্র বলেন, জম্মু ও কাশ্মীরে শীঘ্রই স্বাভাবিক রাজনৈতিক পরিবেশ ফিরবে বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যে বিবৃতি দিয়েছেন, তাকে আমরা স্বাগত জানাই। কাশ্মীরসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সরাসরি কথা হোক, সেটা আমরা সমর্থন করি।
তৃতীয কোনও দেশের মধ্যস্থতা কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত যে চায় না, তা ফের স্পষ্ট করে আমেরিকাকে জানানোর পরে ট্রাম্প কদিন আগেই অবশ্য বলেন, মোদি সত্যিই মনে করেন, কাশ্মীরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। আমার সঙ্গে মোদি ও ইমরানের সম্পর্ক খুবই ভালো। আমি তো আছিই। আমি মনে করি ওরা দুজনে মিলেই এই সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। মঙ্গলবারই ফের পাকিস্তান জাতিসংঘের কাছে অভিযোগ জানিয়ে বলেছে, কাশ্মীরে মানবাধিকার আইন বিরাট ভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে। ভারত অবশ্য তাতে পাত্তা দেয়নি। বরং পাকিস্তানকে বলেছে, পুশ ট্রেড, নট টেররিস্ট। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেছেন, পাকিস্তানের উচিত স্বাভাবিক প্রতিবেশী দেশের মতো আচরণ করা। সূত্র : দ্য ওয়াল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ