Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

নতুন করে ছাত্রদলের প্রার্থিতা হারালেন মামুন খান ও জুয়েল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ আগস্ট, ২০১৯, ৯:৪৬ এএম

ছাত্রদলের ষষ্ঠ কাউন্সিলের যাচাই-বাছাইয়ের পর আপিল শুনানিতে প্রার্থিতা হারিয়েছেন দুইজন। তারা হলেন - সভাপতি পদে মামুন খান ও সাধারণ সম্পাদক পদে জুয়েল হাওলাদার। এছাড়া আপিলে নিষ্পত্তির মাধ্যমে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন সাধারণ সম্পাদক পদে ৫ জন। আপিল কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্ত সাবেক ছাত্রনেতা ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু এবং বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন এ তথ্য জানান।

ছাত্রদলের ষষ্ঠ কাউন্সিলে প্রার্থিতার শর্ত পূরণে যাচাই-বাছাই কমিটি যাদের প্রার্থিতা বাতিল করেছিল, তাদের মধ্য থেকে প্রার্থিতা ফিরে পাবার জন্য আপিল কমিটির কাছে অনেকেই আবেদন করেছিলেন। আপিল কমিটি শুক্রবার বাতিল হওয়া প্রার্থীদের আবেদনগুলো নিষ্পত্তি করেন।

সভাপতি পদে প্রার্থিতা বাতিল হয়েছিল, আল মেহেদী তালুকদার, আরাফাত বিল্লাহ খান, মোঃ আসাদুল আলম, মোঃ আজিম উদ্দিন মেরাজ, এস এ এম আমিরুল ইসলাম, জুয়েল মৃধা এবং ফজলুল হক নীরব এর।

যাচাই বাছাই কমিটির বাতিল ঘোষিত সাত জন সভাপতি প্রার্থীতা আপিল আবেদন চূড়ান্ত বিশ্লেষণে গ্রহণযোগ্য মনে হয়নি, তাই তাদের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়।

অপরদিকে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী হিসেবে যারা যাচাই-বাছাই কমিটির সিদ্ধান্তে বিবেচিত হয়নি, তারা হলেন-সাদিকুর রহমান, কে এম সাখাওয়াত হোসাইন, সিরাজুল ইসলাম, মোঃ ইমদাদুল হক মজুমদার, মোহাম্মদ জামিল হোসেন। কিন্তু আপিল কমিটির কাছে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এই ৫ জন প্রার্থী তাদের প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছেন।
এর বাইরে সভাপতি পদে মোঃ মামুন খান, সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ জুয়েল হাওলাদারের প্রার্থীতা আপিল কমিটি অনুমোদন করেনি, বিধায় তাদের প্রার্থিতা আর বহাল নেই। এছাড়াও মোহাম্মদ ওমর ফারুক এর সাধারণ সম্পাদকের পদে প্রার্থীতা যাচাই-বাছাই কমিটির সিদ্ধান্ত বহাল রেখে অনুমোদিত হয়নি।

আপিল কমিটি প্রতিটি বিষয়ে পুংখানুপুংখ বিচার-বিশ্লেষণ করে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীদের আবেদন বিশ্লেষণ করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। প্রার্থীদের যোগ্যতার বিচারে নীতিমালার ভিত্তিতে ছাত্রত্ব বিবাহ সংক্রান্ত বিষয়ে অন্যান্য প্রসঙ্গে চুলচেরা বিশ্লেষণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। শনিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ছিল কিন্তু সেটা একদিন বাড়িয়ে ১ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা থেকে ৫টা পর্যন্ত করা হয়েছে। ২ সেপ্টেম্বর চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে। ভোট গ্রহণ হবে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ছাত্রদল

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ