Inqilab Logo

বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫ মাঘ ১৪২৮, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সকল সরকারী চুক্তিতে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির ধারা যুক্ত করা হবে : আইনমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

বিরোধের তাৎক্ষণিক সমাধান ব্যবসা, বিনিয়োগ, বাণিজ্য এবং শিল্পে সাফল্যের মূল চাবিকাঠি।টেকসই আর্থিক খাতের জন্য আদালতে যাওয়ার আগে এডিআর (বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি) পদ্ধতির প্রয়োগ এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সকল সরকারী চুক্তিতে এডিআর বা সালিশ ও মধ্যস্থতার মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য উপযুক্ত ধারা যুক্ত করার নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। মামলা- মোকদ্দমার আগে বিরোধ নিষ্পত্তিতে সালিশ ও মধ্যস্থতার প্রয়োগ নিশ্চিত করা গেলে আদালতের ওপর চাপ কমবে। মামলার জট হ্রাস পাবে। এ কথা বলেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।
গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল আরবিট্রেশন সেন্টার (বিয়াক) আয়োজিত ‘টকসই আর্থিক খাতের জন্য আর্থিক বিবাদসমূহ সমাধানকল্পে কার্যকর বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি প্রক্রিয়া’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
বিয়াক’র চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনসী, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক, থাইল্যান্ড আরবিট্টেশন সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পাসিত আসওয়াওয়াত্তাপরন, বিশ্ব ব্যাংকের কর্মকর্তা পারমিতা দাসগুপ্তা, লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সাইমন আস্কি, ব্যারিস্টার ড. খালেদ হামিদ চৌধুরী, আইএফআইসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম শাহ আলম সারওয়ার, সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসরুর আরেফিন প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
আইনমন্ত্রী আরো বলেন, বিশ্বব্যাপি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানলো এখন মামলা মোকদ্দমার দীর্ঘসূত্রতায় না জড়িয়ে বিরোধ নিষ্পত্তি করার জন্য দ্রুত এবং সোজাসাপ্টা পদ্ধতিকে বেছে নিচ্ছে। অর্থাৎ তারা বিরোধ নিষ্পত্তি পদ্ধতি পরিবর্তন করা শুরু করেছেন এবং বাণিজ্যিক বিরোধের দ্রুত ও কার্যকর সমাধানের সুবিধার্থে এডিআর পদ্ধতিগুলোকে সামনে নিয়ে এসেছেন। আমাদের ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তা যারা বিশ্বব্যাপি প্রতিযোগিতা করছেন, তাদেরকে বিকল্প পদ্ধতিতে ব্যবসায়িক বিরোধ নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে বিশ্বের সেরা অনুশীলনগুলোকে বাংলাদেশে প্রয়োগের চেষ্টা করতে হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ