Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী

মুসলমানদের নির্মূল করতে চাইছে ভারত –ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:৪৪ পিএম

কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর থেকেই ভারতের সাথে সব কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ভারত সেখানে মুসলমানদের উপরে নির্যাতন চালাচ্ছে বলে অভিযোগ ছিল তার। এবার আর শুধু কাশ্মীর নয়, এনআরসি নিয়েও কথা বলা শুরু করলেন ইমরান খান। শুধু তাই নয়, এনিয়ে ভারতীয় মিডিয়ার রিপোর্টকে হাতিয়ার করে ট্যুইটও করেছেন তিনি।

ইমরান খান তার টুইট বার্তায় লেখেন, ‘এনআরসি করে মুসলিম সম্প্রদায়কে জাতিগতভাবে নির্মূল করতে চাইছে ভারত সরকার।’ তার দাবি, ‘ভারত ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে খবর আসছে মোদি সরকার কীভাবে মুসলিম সম্প্রদায়কে জাতিগতভাবে নির্মূল করতে চাইছে। গোটা বিশ্বের কাছে অশনি সংকেত দিচ্ছে মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্ত।’ অভিযোগের সুরে তার বক্তব্য, যেভাবে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। সেইভাবেই এবার নেওয়া হল এনআরসি-র সিদ্ধান্ত। একের পর এক জাতিগত বিদ্বেষমূলক সিদ্ধান্ত নিয়ে চলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত জুড়েই বিতর্কিত হয়েছে মোদি সরকার। এবার সেই তালিকায় নতুন সংযোজন এনআরসি। আসামের চূড়ান্ত এনআরসি তালিকা থেকে বাদ পড়েছে ১৯ লক্ষ ৬ হাজার ৬৫৭ জনের নাম। মুসলমানদের বিদেশী বলে সেখান থেকে বিতাড়ন করাই এর উদ্দেশ্য বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। বিজেপি নেতাদের কথায়ও বিষয়টি প্রকাশ হয়েছে। রবিবারই পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, হিন্দুদের স্বাগত, কিন্তু ভারতে স্থান হবে না বাংলাদেশী মুসলমানদের। সূত্র: টিওআই।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ