Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনের পর্যাপ্ত সময় আছে: ইসি সচিব

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫:৩৬ পিএম

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কাছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন করার জন্য এখনও পর্যাপ্ত সময় রয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসির অতিরিক্ত সচিব মোখলেছুর রহমান। আজ রোববার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নির্বাচন ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার সময় ঘনিয়ে আসছে, কবে নাগাদ এ দুই সিটিতে ভোট হতে পারে জানতে চাইল মোখলেছুর রহমান বলেন, ‘এ বিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত নেয়নি। এখনও টাইমফ্রেম (সময় নির্ধারণ) হয়নি। পর্যপ্ত সময় এখনও হাতে রয়েছে। যথাসময়ে জানানো হবে।’
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে প্রথমবারের মতো নির্বাচন হয় ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিলে। এ দুই সিটিতেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়লাভ করেন। ঢাকা উত্তর সিটির নগর পিতা হন আনিসুল হক এবং দক্ষিণের সাঈদ খোকন।
এদিকে ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর মৃত্যুর পর ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদ শূন্য হয়। দেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপির অংশগ্রহণ ছাড়াই চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি সেই পদে উপ নির্বাচন হলে নগরপিতা নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম।
ঢাকা দুই সিটির নগর পিতা হিসেবে আনিসুল হক ও সাঈদ খোকন ২০১৭ সালের বছরের ৬ মে শপথ গ্রহণ করেন। অর্থাৎ আগামী ২০২০ সালের মে মাসে পাঁচ বছর পূর্ণ হতে যাচ্ছে এই দুই নির্বাচনের। নির্বাচনি বিধান অনুযায়ী, পাঁচ বছর পূর্ণ হওয়ার ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন হওয়ার বিধান রয়েছে। এ হিসাবে চলতি বছরের ডিসেম্বর থেকে আগামী বছরের মে মাসের মধ্যে এ দুই সিটিতে নির্বাচন করার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে।
এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন, ২০০৯-এর প্রথম অধ্যায়ের ৬ নম্বর ধারা অনুযায়ী, ‘সিটি কর্পোরেশনের মেয়াদ উহা গঠিত হইবার পর উহার প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হইবার তারিখ হইতে পাঁচ বৎসর ইহবে।’
এ আইনের চতুর্থ অধ্যায়ের ৩৪ নম্বর ধারার ‘খ’ উপ ধারা অনুযায়ী, ‘সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হইবে মেয়াদ শেষ হইবার ক্ষেত্রে, উক্ত মেয়াদ শেষ হইবার পূর্ববর্তী একশত আশি দিনের মধ্যে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ