Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

দেশের চার জেলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ৪ জন নিহত হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে বিদেশি পিস্তল, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। গত রোববার রাত থেকে গতকাল সকালের মধ্যে এসব ‘বন্দুকযুদ্ধ’ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে বলে জানায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। নিহতদের মধ্যে সিলেটে ২০ মামলার আসামি ফজর আলী, কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলায় নৌদস্যু নুরুল কাদের ওরফে রানা, চট্টগ্রামে উঠতি সন্ত্রাসী জয়নাল আবেদীন ও ময়মনসিংহে অটোচোর চক্রের সক্রিয় সদস্য খলিলুর রহমান বলে দাবি করেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

চট্টগ্রাম : নগরীর বায়েজিদ থানার আমিন জুট মিল এলাকায় পুলিশের সাথে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত জয়নাল আবেদীনকে (২০) উঠতি সন্ত্রাসী বলে দাবি করে পুলিশ। বায়েজিদ থানার ওসি আতাউর রহমান খন্দকার দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, জয়নাল আবেদীন বায়েজিদ এলাকায় বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটায়। তার এলোপাতাড়ি কোপে কয়েকজন মানুষ পঙ্গু হয়ে গেছে। একটি মামলায় রোববার রাত ১টায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।
এরপর রাত ২টায় তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী, আমিন জুট মিল খেলার মাঠে অস্ত্র উদ্ধারে গেলে তার সহযোগীরা গুলি ছোঁড়ে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এক পর্যায়ে জয়নালের পায়ে দুটি গুলি লাগে। সেখান থেকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় তার মৃত্যু হয়। তাকে বাঁচিয়ে রাখতে বেশ কয়েক ব্যাগ রক্ত দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।
কক্সবাজার : কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নুরুল কাদের ওরফে রানা (৩৪) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, নিহত নুরুল নৌদস্যুতার সঙ্গে জড়িত। গতকাল সোমবার ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের সাইরারডেইল এলাকায় এই ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা নৌদস্যুদের আস্তানা থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ৭টি অস্ত্র ও ৬৩টি গুলি উদ্ধার করে। নিহত নুরুল কাদের উপজেলার ধলঘাট ইউনিয়নের সাপমারার ডেইল এলাকার নুরুল হকের ছেলে। র‌্যাব-৭-এর সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া ও অপারেশন কর্মকর্তা) মো. মাশকুর রহমান বলেন, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরা ৫২টি গুলি ছোড়ে।
ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহে ডিবি পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে খলিলুর রহমান (৩৭) নামের আন্তঃজেলা অটোচোর চক্রের সক্রিয় সদস্য নিহত হয়েছে। সে ফুলবাড়িয়া উপজেলার বাশচালা গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে এক এসআইসহ দুই পুলিশ সদস্য।
ডিবির ওসি শাহ কামাল হোসেন আকন্দ জানায়, রাত সোয়া ১ টার দিকে ময়মনসিংহ শহরের বাদে কলপা এলাকায় কিছু আন্তঃজেলা চোরচক্রেরর সদস্যরা চোরাইকৃত অটোরিকশা কেনাবেচা করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় ডিবি পুলিশের একটি দল। এ সময় উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে চোরচক্রের সদস্যরা গুলি ছুড়ে । পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে চোরচক্রের সদস্যরা পালিয়ে যায়। এ সময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আন্তঃজেলা অটোচোরচক্রের সক্রিয় সদস্য খলিল নামের একজনকে আটক করা হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। তিনি আরো জানান, নিহত অটোচোর খলিলের বিরুদ্ধে ৮টি অটোরিকশা চুরি মামলাসহ ১০টি মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি চোরাই অটো এবং একটি পাইপগান উদ্ধার করা হয়েছে।
সিলেট : সিলেটে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ফজর আলী নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। গত রোববার গভীর রাতে গোয়াইনঘাটের সালুটিকরের মিত্রিমহল গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। র‌্যাবের দাবি নিহত ব্যক্তি ২০ মামলার আসামি ছিলেন। তবে পুলিশ এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারেনি।
র‌্যাব-৯ জানিয়েছে, রোববার গভীর রাতে গোপন স‚ত্রে খবর পেয়ে গোয়াইনঘাটের সালুটিকর এলাকার মিত্রিমহল গ্রামে মাদক ব্যবসায়ীদের আস্তানায় অভিযান চালায় তারা। তখন র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালায় মাদক ব্যবসায়ীরা। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি করে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ১০/১৫ মিনিট গুলিবিনিময় হয়। গোলাগুলির এক পর্যায়ে নিহত হন ফজর আলী। তবে অপর মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। নিহত ফজর আলীর বাড়ি সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায়। পরে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। র‌্যাব জানায়, নিহত ফজর আলীর বিরুদ্ধে সিলেটের বিভিন্ন থানায় ২০টি মামলা আছে। তার বিরুদ্ধে শিশু নির্যাতনের অভিযোগ রয়েছে।

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বন্দুকযুদ্ধে

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ