Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

সাদ এরশাদকে প্রার্থী করা হলে রংপুরের নেতাকর্মীরা তার পক্ষে মাঠে থাকবে না -মেয়র মোস্তফা

রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৭:৪৮ পিএম

রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে সাদ এরশাদকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী করা হলে তার পক্ষে মাঠে না থাকার ঘোষণা দিয়েছেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য, রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।
আজ মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ ঘোষণা দেন।
তিনি বলেন, রংপুরের এই আসনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই এ আসনে সাধারণ মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে এমন প্রার্থীকে মনোনয়ন দিতে হবে। এটাতো ১৯৯১ বা ৯৬’র প্রেক্ষাপট নয় যে, যে কাউকে ধরে এনে প্রার্থী করা হলে জিতে যাবে। এখনকার প্রেক্ষাপট ভিন্ন। দেখে-শুনে প্রার্থী না দিলে দলের জন্য মারাত্মক ক্ষতি হবে।
মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, জননন্দিত, জনসমর্থিত, পরিচ্ছন্ন মানুষকে এরশাদ স্যারের আসনে প্রার্থী ঘোষণা করতে হবে। সেক্ষেত্রে স্থানীয় তিনজন প্রার্থী রয়েছেন, যাদেরকে কমবেশি সবাই চিনে এবং জানে। এদের কাউকে প্রার্থী করা হলে নেতাকর্মীদের কোনো আপত্তি থাকবে না।
এ সময় সাদ এরশাদের প্রার্থিতা চূড়ান্তের ইঙ্গিত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমিও তো আপনাদের মতো শুনেছি। কিন্তু এখনো সাদকে চূড়ান্ত করা হয়নি বলে জানি। যদি সাদ এরশাদকে প্রার্থী করা হয়, তাহলে আমরা রংপুর জাতীয় পার্টি তার পক্ষে কাজ করব না।
সাদ এরশাদের জয়ের কোনো সম্ভাবনা নেই। যারা তাকে প্রার্থী করতে মরিয়া। তাদেরকেই রংপুরে এসে মাঠে কাজ করতে হবে। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা সাদের সঙ্গে থাকবে না। আমি দলের নীতি নির্ধারকদের কাছে আহ্বান জানাব এমন একজনকে প্রার্থী করা হোক, যাকে স্থানীয়ভাবে সবাই জানেন, চিনেন এবং ভোট দেবেন।
এদিকে সাদ এরশাদকে রংপুরে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে তার কুশপুতুল পোড়ানোসহ নগরীতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে এরশাদের ভাতিজা সাবেক এমপি হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফের কর্মী-সমর্থকরা। তারা এরশাদের স্মৃতি বিজড়িত এ আসনে পরিবারের সদস্য হিসেবে আসিফ শাহরিয়ারকে মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানান।
উল্লেখ্য, গত ১৪ জুলাই এরশাদের মৃত্যুতে রংপুর-৩ (সদর) আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৫ অক্টোবর ভোট গ্রহণ হবে। মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর। যাচাই-বাছাই ১১ সেপ্টেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১৬ সেপ্টেম্বর। ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৫ অক্টোবর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উপনির্বাচন

৬ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন